এই প্রথম বাংলাদেশে “দুগ্গা সম্মান” জানানোর উদ্যোগ

FB_IMG_15397917538302370-1.jpg

এম.আর.জে শান্ত, বিনোদন প্রতিবেদক:
মণ্ডপে মণ্ডপে চলছে আয়োজনের ধুম। বর্ণিল রূপমায় গভীর মমতায় শোভিত হয়েছে মা দুর্গার অগণিত প্রতিমা। যাকে ঘিরে উৎসবমুখরতা আর ধর্মীয় ভাব-গাম্ভীর্যতায় মেতে উঠেছে সনাতন ধর্মের মানুষরাসহ পুরো নগরবাসী। এমনি নানা বৈচিত্র্যমুখী আয়োজন-আনুষ্ঠানিকতায় শারদীয় দুর্গোৎসব এখন রূপ পেয়েছে সার্বজনীন এক মহোৎসবে। ঢাকাসহ সারাদেশে এ উৎসবের চিত্র প্রায় একই।
প্রতি বছর সারা বিশ্বের সনাতন ধর্মের মানুষ যেমন তাদের হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা নিবেদনে প্রণতি জানায় মা দুগ্গার প্রতিমায়। তেমনি এবারও যথাযোগ্য মর্যাদায় মা দুর্গাকে তারা বরণ করছে বিনম্র ভালোবাসায়। তবে মা দুগ্গাকে যারা সম্মান করেন। এই প্রথমবারের মত তাদের সম্মান জানানোর বিশেষ এক উদ্যোগ নিয়েছে ভারতের পশ্চিম বাংলার জলসিঁড়ি এন্টারটেইনমেন্ট লিমিটেড এবং বাংলাদেশের ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট ও বিজ্ঞাপনী সংস্থা ক্রিসপি।

সারা ভারতে প্রতি বছরই ‘শারদ সম্মান’ নামে অনেক পূজা মণ্ডপকে এমনি সম্মানিত করা হলেও এই প্রথমবারের মত বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে একই ধরণের প্রণোদনামূলক এ আয়োজন। যার নামকরণ করা হয়েছে ‘জলসিঁড়ি দুগ্গা সম্মান’।

এই দুগ্গা সম্মানের উদ্দেশ্য হচ্ছে, যারা মা দুগ্গার সম্মানে ঢাকা শহরের বিভিন্ন স্থানে পূজা মণ্ডপ নির্মাণ করেছেন, তার মধ্য থেকে বিচারকদের মূল্যায়নে বিবেচিত সেরা পূজা মণ্ডপকে সম্মান জানানো। প্রণোদনা ও উৎসাহমূলক এই আয়োজনে চূড়ান্তভাবে মনোনীত মণ্ডপ তথা সংশ্লিষ্টদের স্বীকৃতিসরূপ প্রদান করা হবে সম্মাননা স্বারক ও সম্মানী। পূজার ব্যবস্থাপনা, সাজ-সজ্জা, প্রতিমার সৌন্দর্যসহ সর্বমোট ছয়টি ক্যাটাগরিতে এই সম্মান জানানো হবে বলে সংশ্লিষ্টসূত্রে জানা গেছে।
আজ ১৭ এবং ১৮ অক্টোবর ঢাকা জুড়ে চলমান শারদীয় দুর্গাপূজার মণ্ডপগুলো পরিদর্শনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে সেই মূল্যায়ন কার্যক্রম। এই বিচার কাজ পরিচালনার জন্য এরই মধ্যে গঠন করা হয়েছে একটি জুরিবোর্ড। এতে থাকছেন- চলচ্চিত্র পরিচালক ও জনপ্রিয় উপস্থাপক দেবাশীষ বিশ্বাস, সঙ্গীত শিল্পী সন্দীপন এবং অভিনেত্রী-নির্দেশক জয়িতা মহলানবীশ। চূড়ান্ত মূল্যায়ন শেষে পুরষ্কার বিতরণে অংশ নিবেন দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বিশিষ্টজনেরা।

বিশেষ এই কর্মযজ্ঞকে ঘিরে ১৬ অক্টোবর সন্ধ্যায় রাজধানীর সেগুন বাগিচাস্থ সেগুন রেস্টুরেন্টে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- ভারতের জলসিঁড়ি এন্টারটেইনমেন্ট লিঃ-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর শ্রী তমোজ্যোতি মুখার্জী এবং বাংলাদেশের ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট ও বিজ্ঞাপনী সংস্থা ক্রিসপির কর্ণধার মইনুল ইসলাম।
এছাড়া জলসিঁড়ি ও ক্রিসপীর মুখপাত্র হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট আইনজীবি ও চিত্রনাট্যকার মীর্জা রাকিব, চিত্রপরিচালক ও উপস্থাপক দেবাশীষ বিশ্বাস, সঙ্গীতশিল্পী সন্দীপন এবং অভিনেত্রী জয়িতা মহলানবীশ প্রমুখ। এবার শুধুমাত্র ঢাকাকেন্দ্রীক আয়োজনটি হলেও পর্যায়ক্রমে এটি সারাদেশে প্রসারিত হবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান আয়োজকরা।
শুধু তাই নয়, আগামী বছর থেকে এ আয়োজনটিকে আরো ঝাকঝমকপূর্ণভাবে করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান তারা। বিশেষ এই উদ্যোগে এবার স্পন্সর হিসেবে রয়েছে- অপ্পো বাংলাদেশ কমিউনিকেশন, এস এস মাল্টিমিডিয়া এবং জাভেরী গোল্ড

Top