ফাইতংয়ে জমি বিরোধে একই পরিবারের ৪জনকে কুপিয়ে জখম, ছাত্রীকে গাছের সাথে বেধে নির্যাতন,আটক-২

faytang-pic-2-9-18.jpg

সাঈদী আকবর ফয়সাল,চকরিয়া:
চকরিয়ার সীমান্তবর্তী ফাইতংয়ে জমি বিরোধকে কেন্দ্র করে ভাড়াটিয়া অস্ত্রধারী একই পরিবারের ৪জনকে কুপিয়ে জখম করেছে। এমনকি ১৭ বছর বয়সী মাদরাসা ছাত্রীকে রসি দিয়ে গাছের সাথে বেধে পাষবিক নির্যাতন চালানো হয়েছে। স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় ফাইতং ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নির্যাতিত মাদরাসা ছাত্রীসহ আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ২জনকে গ্রেফতার করেছে। গতকাল ২ অক্টোবর দুপুর ১২টায় লামা উপজেলার ফাইতং ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ফাদুরছড়া গ্রামে ঘটেছে এ ঘটনা।
অভিযোগে জানাগেছে, ফাইতং ফাদুর ছড়া গ্রামে মৃত তফুর আলীর পুত্র আবদুল করিম গংয়ের সাথে একই এলাকার নুরুল ইসলামের পুত্র মো: ফারুক গংয়ের মধ্যে দীর্ঘ ৭ বছর ধরে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। উক্ত বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় শালিসী বৈঠকে ও থানার বিচারে আবদুল করিম গংয়ের পক্ষে ডিক্রি দেন। ক্ষিপ্ত হয়ে ফারুক গং বান্দরবান জেলা জজ আদালতে আপিল মামলা দায়ের করেন এবং গতকাল ২ অক্টোবর দুপুর ১২টার দিকে চকরিয়াসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে অস্ত্রধারী ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী এনে আবদুল করিম গংয়ের জমি জোরপূর্বক জবর দখলে নিতে এক পর্যায়ে প্রকাশ্য দিবালোকে অভিযুক্ত ফারুক, তার ভাই সাইফুল, বারেকসহ ভাড়াটিয়া শতাধিক সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে হামলা, ভাংচুর ও লুৎপাট চালায়। এসময় গৃহকর্তা আবদুল করিম, তার স্ত্রী ছফুরা খাতুন (৫০), মৃত আলী আহমদের পুত্র নুর মোহাম্মদ (৪০) মাদরাসা ছাত্রী জোহাইরা বেগম (১৭)কে বেধম মারধর করে। লুট করে নিয়ে যায় স্থানীয় ফাইতং বায়তুল মামুর মসজিদের জমা রাখা ১ লাখ টাকাসহ বাড়ির নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার এবং মালামালসহ ৫ লক্ষাধিক টাকা। হামলাকারীরা মাদরাসা ছাত্রী জোহাইরা বেগমকে রসি দিয়ে গাছের সাথে প্রকাশ্যে হাত-পা ও মুখ বেধে শাররীক ও মানষিক নির্যাতন করে। নির্যাতনের এক পর্যায়ে মাদরাসা ছাত্রীকে শ্লীলতাহানীরও চেষ্টা চালায়। নির্মম এই দৃশ্য সহ্য করতে না পেরে স্থানীয় লোকজন ফাইতং পুলিশ ফাড়িকে খবর দিয়ে আহত ও নির্যাতিতদের উদ্ধার করেন। এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্ত ফারুক ও ভাড়াটিয়া বাদশাকে গ্রেফতার করলে অন্যান্য দখলবাজ ও হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।
লামা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) অপ্পেলা রাজু নাহা জানিয়েছেন, ফাইতংয়ে জমি জবর, হামলা ও নির্যাতনের খবর পেয়ে ফাইতং পুলিশ ঘটনাস্থলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। ঘটনাস্থল থেকে ২জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে থানায় মামলা নেওয়া হয়েছে। ##

Top