জামালপুরে চাঞ্চল্যকর মুয়াল্লেম হত্যা মামলায় এক মাদরাসা পরিচালক আটক

Jamalpur-pic-03.jpg

রোকনুজ্জামান সবুজ জামালপুর:
জামালপুরের নরুন্দিতে হাজীদের মুয়াল্লেম আব্দুল হক হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে শফিকুল ইসলাম (৩৯) নামের এক মাদরাসা পরিচালককে আটক করেছে সিআইডি। আটক শফিকুল ইসলাম শেরপুর জেলার সাতপাকিয়া গ্রামের মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে বলে জানা গেছে।
জানা গেছে, জামালপুর সদর উপজেলার নরুন্দি ইউনিয়নের মহিশুরা গ্রামের আব্দুল হক সৌদি আরবে হজ যাত্রীদের মুয়াল্লেম ছিলেন। তিনি গত বছরের ১২ মে ১০ লাখ টাকাসহ নিখোঁজ হয়। পরে ১৬ মে স্থানীয় মানিকার চরের ব্রহ্মপুত্র নদে তাঁর লাশ পাওয়া যায়।
স্বজনদের অভিযোগ, হত্যাকারীরা আব্দুল হকের লাশ গুম করার উদ্দেশে সিমেন্টের দুটি খুঁটির সঙ্গে বেঁধে পানিতে ডুবিয়ে রেখেছিল। তাঁর সঙ্গে ১০ লাখ টাকা ছিল। তিনি টাকাগুলোর বিনিময়ে ডলার সংগ্রহ করার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়েছিলেন।
পরিবারের ধারণা, খুনিরা পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে ডলার লেনদেনের কথা বলেই তাঁকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে লাশ গুম করেছিল। এ ঘটনায় গত বছরের ১৬ মে স্ত্রী মরিয়ম আক্তার বাদী হয়ে জামালপুর সদর থানায় একটি মামলা করেন। পুলিশ মামলাটি জামালপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সিআইডিতে স্থানান্তর করে। দীর্ঘ তদন্ত শেষে সিআইডি গত জুলাই মাসে নরুন্দি ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহান আলীকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে পাঠায়।
জামালপুর সিআইডি সূত্রে জানা যায়, চাঞ্চল্যকর এই হত্যাকান্ডের সাথে কে কে জড়িত তা খোঁজে বের করতে কাজ করছে সিআইডি। হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে শফিকুল ইসলামকে তার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সে শেরপুরের হামিউস সুন্নাহ রওজাতুল উলুম নুরানী কওমি মাদরাসার পরিচালক। তার বিরুদ্ধে হুন্ডি ব্যবসারও অভিযোগ রয়েছে।
এ ব্যাপারে জামালপুর সিআইডি‘র পরিদর্শক এমএ নাসিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আটক শফিকুলকে সোমবার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Top