চকরিয়া মাতামুহুরী নদীতে বালিদস্যুদের উৎপাত,ছোট বড় গর্ত, চুরাবালি কেড়ে নিল ৫ শিক্ষার্থীর জীবন

37117809_1601749186618571_5416079151826206720_n.jpg

আবদুর রাজ্জাক,কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি :
কক্সবাজারের চকরিয়ায় ফুটবল খেলা শেষে মাতামুহুরী নদীতে গোসল করতে নেমে চুরাবালির কবলে পড়ে একই স্কুলের নিখোঁজ পাঁচ শিক্ষার্থী মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। বিকাল ৪টা থেকে টানা ৯ ঘন্টা শ্বাসরোদ্ধকর অভিযান শেষে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারকৃত মৃত শিক্ষার্থীরা হচ্ছে চকরিয়া গ্রামার স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. রফিকুল ইসলামের ১০শ্রেণী পড়ুয়া ছেলে সায়ীদ জাওয়াদ অরভি (১৫), আনোয়ার হোসেনের দুই ছেলে ১০শ্রেণী পড়ুয়া আমিরুল হোসেন এমশাদ (১৫) ও ৮শ্রেণী পড়ুয়া আফতাব হোসেন মেহরাব (১২) , প্রদ্যুৎ ভট্টাচার্য্যর ছেলে ১০শ্রেণী পড়ুয়া তূর্ণ ভট্টাচার্য্য ও একই শ্রেণী শওকত আলীর ছেলে ফারহান বিন শওকত (১৫)। তারা সবাই চকরিয়া গ্রামার স্কুলের শিক্ষার্থী।
স্থানীয়দের অভিযোগ, বালিদস্যুদের অবৈধ বালি উত্তোলনের কারণে নদীতে ছোট বড় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে। উক্ত গর্তে জমানো চুরাবলিতে পড়ে তাদের মৃত্যু হতে পারে বলে ধারণা সচেতন মহলের। গতকাল শনিবার (১৪জুলাই) দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে চকরিয়া মাতামুহুরী নদীর ব্রীজের অদূরে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে স্থানীয় বাসিন্দা, চকরিয়া প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের যৌথ অভিযানে তাদের মৃতদেহগুলো উদ্ধার করা হয়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, চকরিয়া গ্রামার স্কুলের অর্ধ-বার্ষিকী পরীক্ষা শেষে গতকাল শনিবার বিজ্ঞান বিভাগের ২২ জন ও অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্র মাতামুহুরী ব্রীজ সংলগ্ন নদীর ভরাট চরে ফুটবল খেলতে যায়। তারা ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা এই দুই দলে বিভক্ত হয়ে খেলার সময় হঠাৎ নদীতে বল পড়ে যায়। এ সময় একের পর এক করে নদীতে পড়ে যাওয়া বল অনতে গেলে চুরাবালির কবলে পড়ে। এতে মুহুর্তের মধ্যে নিখোঁজ হয়ে পড়ে ৫ শিক্ষার্থী। পরে খবর পেয়ে তাদের উদ্ধার অভিযান চালায় স্থানীয় প্রশাসন ও উদ্ধারকর্মীরা।
চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নুরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান বলেন, স্থানীয়দের সহায়তায় ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা নিখোঁজ ছাত্রদের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে।
সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, নদী তীরে নিখোঁজ ছাত্রদের অভিভাবক, শিক্ষক-শিক্ষার্থী, আত্মীয়সহ শতশত জনতা নদীর চরে ভীড় জমায়। আত্মীয়দের আহাজারিতে জড়ো হওয়া লোকজনও অশ্রু ধরে রাখতে পারেনি। সৃষ্টি হয় করুণ দৃশ্যের। নদী চরে ৫ ছাত্রের জুতা ও দুই জনের ব্যাগ পড়ে ছিলো।
শিক্ষকরা জানায়, নিখোঁজ ১০ম শ্রেনীর চার ছাত্র জেএসসিতে এ প্লাস পায়। অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রও পিএসসিতে এ প্লাস পেয়ে উর্ত্তীর্ণ হয়। নদী চরে উপস্থিত উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব জাফর আলম বলেন, এমন মর্মান্তিক ঘটনা চকরিয়ায় অতীতে আর ঘটেনি। এ ঘটনায় চকরিয়াতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Top