ডোমারে শত্রুতার জের ধরে ছাত্রকে পিটিয়ে আহত।

madrasha-student.jpg

বখতিয়ার ঈবনে জীবন,ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ

নীলফামারীর ডোমারে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এক মাদ্রাসার ছাত্রকে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করেছে প্রতিপক্ষরা, অসুস্থ অবস্থায় মাদ্রাসা ছাত্রটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ডোমার পৌর এলাকার ছোট রাউতা গ্রামে।

অভিযোগ সুত্রে যানাযায়, গত ২৯ মার্চ বৃহস্পতিবার ছোটরাউতা ডাঙ্গাপাড়া এলাকার জামিয়া ইসলামিয়া রিয়াজিয়া কওমি মাদ্রাসার কেতাব বিভাগের ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্র আল-আমিন (১১) প্রতিদিনের ন্যায় ফজরের নামাজ আদায় করার জন্য ভোরে ওজু করার পূর্বে প্রসাব খানা থেকে বের হয়ে ঠিলা/কুলুফ হাতে নিয়ে মাদ্রাসার পাশ দিয়ে পায়চারী করছিল। এ সময় প্রতিবেশী ফজলুর রহমান, আঃ সুবাহান ও তাদের ছেলে ছানোয়ার, সুজনসহ অজ্ঞাত নামা লোকজন মিলে উদ্দেশ্য প্রনোদিত ভাবে কে বা কাহারা তাদের বাড়ীর সামনে মলভ্যাগ করেছে সন্দেহে, ছাত্র আল-আমিন কে মাদ্রাসার ভিতর থেকে টেনে হেছরে নিয়ে তাদের বাড়ীর সামনে রশি দিয়ে বেঁধে কাঠের বাটাম দ্বারা আল-আমিনের পায়ে ও হাটু সহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে বেধরক মারপিট করে। তার চিৎকারে মাদ্রাসার শিক্ষক রফিকুল ইসলাম, খতিবুর রহমান সহ মাদ্রাসার ছাত্র গিয়ে আল-আমিন কে অজ্ঞান অবস্থায় তাদের কবল থেকে উদ্ধার করে, ডোমার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

সে বর্তমানে হাসপাতালের ১৪ নং বেডে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তাকে দেখতে মাদ্রাসার শিক্ষক, ছাত্রসহ এলাকাবাসী ভীড় জমায়। মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক খতিবুর রহমান জানান, আমার মাদ্রাসার নিরিহ ছাত্রকে তারা অন্যায় ভাবে মারধর করেছে, আমরা তার সঠিক বিচার চাই, নইলে রাস্তায় আন্দেলনে নামতে বাধ্য হবে তারা।

থানার অফিসার ইনচার্জ মোকছেদ আলী জানান, বিষয়টি দুঃখ জনক, আমরা অভিযোগ পেয়েছি, আগামী কালের মধ্যে সমাধান না হলে দোষী ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে আইগতব্যবস্থা নেয়া হবে।

Top