ডবলমুরিং থানা পুলিশের অভিযান: ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত মোটর সাইকেল ও সিএনজি উদ্ধার, আটক ০১

FB_IMG_1522805472378.jpg

মোঃশহিদুল ইসলাম সুমন,ষ্টাফ রিপোর্টার:

বন্দর নগরী চট্টগ্রামের ডবলমুরিং মডেল থানাধীন মিস্ত্রীপাড়া লাল মসজিদ এর সামনে ছিনতাইকাজে ব্যবহৃত ১টি মোটর সাইকেল ও ১টি সিএনজি উদ্ধার সহ ছিনতাইকারী চক্রের ০১ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে সিএমপি’র ডবলমুরিং থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত ছিনতাইকারী কামাল হোসেন (৩৫)কুমিল্লা জেলার চান্দিনা থানার নবাবপুর ইউনিয়নের  মৃত নজরুল ইসলামের পুত্র।, উদ্ধারকৃত সিএনজি গাড়ী নং- চট্ট-মেট্রো-থ-১২-৩৮১৮, ধৃত কামাল উক্ত সিএনজির চালক।

জানা যায়, গত ০২/০৪/১৮ ইং তারিখ সকাল অনুমান ১১.৩০ ঘটিকায় নগরীর আকবর শাহ এলাকার বাসিন্দা কিশোর কুমার রায় (৪২), পিতা- সুবল চন্দ্র রায়, রুপালী ব্যাংক, অলংকার শাখা, চট্টগ্রাম হতে টাকা উত্তোলন করে অলংকার হতে আগ্রাবাদ যাবার জন্য একটি সিএনজি ভাড়া নেয়। উক্ত সিএনজি চালক অংলকার হতে রওয়ানা করে দুপুর অনুমান ১২.০০ ঘটিকার সময় ডবলমুরিং মডেল থানাধীন মনসুরাবাদ ডিটি রোডস্থ গাজী ফিলিং ষ্টেশনের বিপরীত পার্শ্বে রাস্তার উপর এসে হঠাৎ সিএনজি থামায় এবং প্রস্রাব  করার কথা বলে সিএনজি হতে নামে। ততক্ষণে ছিনতাইকারী দলের আরো তিন সদস্য মোটর সাইকেলযোগে সেখানে উপস্থিত হই। সিএনজি চালক সিএনজি হতে নামার অনুমান ২/৩ মিনিট পর সিএনজিতে ফিরে আসে এবং পানির বোতল রাখার কথা বলে উক্ত প্যাসেঞ্জারকে দরজা খুলতে বলে। দরজা খোলার সাথে সাথে মোটর সাইকেল যোগে আসা ছিনতাইকারী দলের অপর ০৩ সদস্য মোটর সাইকেলটি তালা বদ্ধ অবস্থায় রাস্তার পাশে রেখে উক্ত প্যাসেঞ্জারকে অস্ত্রের ভয় দেখায় এবং তারাও সিএনজিতে উঠে পড়ে। সিএনজিতে উঠার পর সিএনজি চালক সিএনজি চালাতে আরম্ভ করে। সিএনজি চলমান থাকাবস্থায় সকল ছিনতাইকারীরা প্যাসেঞ্জারকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে ভিকটিমের নিকট থাকা টাকা ও মোবাইল ছিনতাইকারীদেরকে দিয়ে দিতে বলে। উক্ত প্যাসেঞ্জার তাদের কথামত কাজ না করলে ছিনতাইকারীরা ভিকটিমকে মারধর করে, গলা টিপে ধরে এবং তাহার নিকট হইতে ০২ টি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়, অতঃপর ছিনতাইকারীরা উক্ত প্যাসেঞ্জারের টাকা ছিনিয়ে নেয়ার পূর্বেই স্থানীয় লোকজন সিএনজি প্যাসেঞ্জারকে গলি পথে ডবলমুরিং মডেল থানাধীন মিস্ত্রীপাড়া লাল মসজিদ এর সামনে রাস্তার উপর দেখে বিষয়টি থানায় অবহিত করলে ডবলমুরিং মডেল থানায় কর্মরত এস.আই/ মোঃ আলাউদ্দিন ও সঙ্গীয় ফোর্সসহ তাৎক্ষনিক উপস্থিত হয়ে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় সিএনজি চালক কামাল হোসেন(৩৫) কে আটক করে ভিকটিমকে উদ্ধার করেন।

অপর ছিনতাইকারী মোঃ নেজাম উদ্দিন (৩৫), মোঃ সুমন প্রঃ লম্বা সুমন (৩৪), জসিম (৪০)গণ ঘটনাস্থল হতে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে এস.আই/মোঃ আলাউদ্দিন দসিএনজি চালকের দেওয়া তথ্য মতে অভিযান পরিচালনা করে ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত যানবাহন সিএনজি ও মোটর সাইকেলটি উদ্ধার করেন।

ছিনতাইকারী মোঃ কামাল হোসেন(৩৫) কে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন থানায় ছিনতাই, দস্যুতা ও অস্ত্র মামলা রয়েছে। তাদের গ্রেফতারের লক্ষ্যে মহানগরীর বিভিন্ন থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা অব্যহত আছে।

গ্রেফতারকৃত ও পলাতক আসামীগণের বিরুদ্ধে হালিশহর থানায় নিয়মিত মামলা রুজু হয়েছে।

Top