কর্ণফুলীতে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্কুল ছাত্রীর যৌন হয়রানির অভিযোগ

29994800_299191063944395_1909358911_o.jpg

বিশেষ প্রতিবেদক:

কর্ণফুলী চরপাথরঘাটা ইউনিয়নের পশ্চিম চরপাথরঘাটা রেজিঃ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে স্কুল ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

২রা এপ্রিল বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী শারমিন-১২ (ছদ্মনাম) মৌখিক অভিযোগে গনমাধ্যমকর্মীদের জানায়, বিদ্যালয়ের কোচিং রুমে গত কয়েকদিন ধরে তিনি যৌন হয়রানির শিকার হচ্ছেন। পরে একই সাথে কোচিং এ পড়া কয়েকজন ছাত্রী বিষয়টি তাদের অভিভাবকদের জানালে এলাকায় বেশ সমালোচনার ঝড় ওঠে। তথ্যমতে জানা যায়, অভিভাবকরা বিষয়টি এখনো স্থানীয় জনপ্রতিনিধি কিংবা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে কোন লিখিত অভিযোগ করেনি। তবে ছাত্রীর মায়ের অভিযোগ,প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ হাশেম দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়ের একটি রুমে কোচিং করার নামে ওর মেয়েকে যৌন হয়রানি করে আসছিলেন। এমনটি অভিযোগ উক্ত ছাত্রীও প্রতিবেদকের সামনে মৌখিক তথ্য দেন।

গত কয়েকদিন যাবৎ যদি মেয়েকে প্রধানশিক্ষক যৌন হয়রানি করে তবে স্কুল কমিটির সভাপতির কাছে নালিশ করেছে কিনা জানতে চাইলে,অভিভাবকেরা কোন উত্তর দিতে পারেনি। এ ব্যাপারে প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও স্কুল সুত্রে জানা যায়, বিষয়টি তাঁরাও মৌখিকভাবে শুনেছেন বিভিন্ন লোক মারফতে। কেহ অভিযোগ করেনি তারপরেও দ্রুত অভিযোগটি আমলে নিয়ে বৈঠকে বসার কথাও জানান। প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ হাশেম এর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা। তবে বিকেলে পড়ানোর সময়,পড়া আদায় না করায় কয়েকজন ৫ম শ্রেণীর ছাত্রীকে বকা ও মারধর করেছিলেন বলে জানান তিনি। এ বিষয়ে কর্ণফুলী থানার ওসি সৈয়দুল মোস্তফা জানান, “গণমাধ্যমকর্মীদের মাধ্যমে বিষয়টি আমরাও জেনেছি। তবে এখনো পর্যন্ত কেহ এ বিষয়ে অভিযোগ করেনি”।

Top