উখিয়ায় উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদকের পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলা আহত ৮

29920589_123212068525490_91766717_n.jpg

কায়সার হামিদ মানিক, উখিয়া:

উখিয়ায় চাঁদার টাকা না দেওয়ায় সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে একই পরিবারের ৮ জনকে গুরুতর আহত করেছে। এ ঘটনায় বর্তমানে এলাকায় থমথমে বিরাজ করছে। এ নিয়ে উখিয়া নিউ ফরেষ্ট অফিস এলাকায় চরম অস্থিরতা দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, রবিবার সকাল ৯ টার দিকে উপজেলার পাতাবাড়ী ফরেষ্ট রোড এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, রাজাপালং ইউনিয়নের নিউ ফরেষ্ট অফিস সংলগ্ন এলাকায় ১৯৯০ সাল থেকে মোঃ ইলিয়াছ পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছে। ঘিলাতলী গ্রামের নজু মিয়া ওই জায়গায় লোলুপ দৃষ্টি পড়ে। দীর্ঘদিন ধরে ভুমিদস্যু নজু মিয়া ইলিয়াছের কাছে চাঁদা দাবী করে আসছিল। চাঁদা না দিলে জায়গা জবর দখল ও মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে আসছিল।

এরই ধারাবাহিকতায় চাঁদা না দেওয়ায় রবিবার সকাল ৯ টার দিকে নজু মিয়া তার ছেলে বাবুল, আলমগীর, ইদ্রিছের নেতৃত্বে ২টি ডাম্পার করে শতাধিক ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে ইলিয়াছ এর জায়গা দখল করার কু-মানসে লাঠিসোঠা, কিরিচ, রামদা, ধারালো অস্ত্র দিয়ে বসত বাড়ি ভাংচুর করে। এ সময় সন্ত্রাসীদের বাধা দিয়ে গিয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিকের পিতা মোঃ ইলিয়াছ (৫৫), মাতা স্ত্রী রানু বেগম (৪৫), ভাই ইয়াকুব মামুন (৩০), আবদুলাহ আল নোমান (২৫), ভাবী নুর আক্তার নুরী (২২), বোন লুৎফুন নাহার সেফা (১৯), চাচাত ভাই জালাল উদ্দিন (৪০) সহ অন্তত ৮ জন গুরুতর আহত হয়।

এ সময় সন্ত্রাসীরা বসত বাড়িতে ঢুকে স্বর্ণালংকার, মোবাইল, নগদ টাকা সহ লক্ষাধিক টাকা ছিনিয়ে নেয়। আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে আহতদের উখিয়া হাসপাতাল ও গুরুতর আহতদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করায়। বর্তমানে আহতদের মধ্যে ৪ জন আশংকাজনক বলে আবু বক্কর সিদ্দিক জানান।

আবু বক্কর সিদ্দিকের কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সে জানায়, ভূমিদস্যু ও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে উখিয়া থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল খায়ের জানান, এ ধরনের একটি ঘটনা ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ ফোর্স পাঠানো হয়। তবে এ ব্যাপারে অভিযোগ পেলে তদন্ত পূর্বক দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Top