ঈদগাঁওতে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানঃ ১ লক্ষ টাকা জরিমানা

received_2060962970847800.jpeg

মোঃ মিছবাহ উদ্দিন#
কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁওতে ভূয়া ডাক্তার বিরোধী অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় খালেছা বেগম নামের এক সিজারিয়ান ডাক্তারকে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা ও চেম্বার সীলগালা করা হয়। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও অনুমতি না থাকায় জরিমানা এবং চেম্বার সিলগালা করে দিয়েছে আদালত। ১ এপ্রিল দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে বাজারের ডিসি সড়কের বটগাছ তলা এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়। ভ্রাম্যমান আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে বাজারের অধিকাংশ ফার্মেসীও বন্ধ করতে দেখা গেছে। জানা যায়,বাজারের বিভিন্ন স্থানে চেম্বার ও ফার্মেসী খুলে সাধারন রোগীদের সাথে প্রতারনা এবং অপ চিকিৎসা করে আসছিল দীর্ঘদিন ধরে। বিষয়টি মিডিয়া সূত্রে কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃনোমান হোসেন প্রিন্সের নজরে আসলে তিনি ঈদগাঁও পুলিশের একদল ফোর্স নিয়ে অভিযানে নামে। প্রথমে বাজারের আলম মেডিকো নামের একটি ফার্মেসীতে অভিযান চালায়। এ ফার্মেসীর আড়ালে ডাক্তার খালেছা বেগম নামের এক মহিলা সাধারণ রোগীদের সাথে প্রতারনা ও প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র ছাড়া চিকিৎসা করার অপরাধে ডেন্টাল মেডিকেল এ্যাক্টের ২০১০ এর ২২ ধারা মোতাবেক ১ লক্ষ টাকা জরিমানা ও চেম্বারটি সিলগালা করে দেওয়া হয়। ভ্রাম্যমান আদালতে ম্যাজিস্ট্রেট নোমান হোসেন প্রিন্স জানান, ঈদগাওর সকল ভূয়া ডাক্তার ও অবৈধ ক্লিনিকের বিরুদ্ধে পুনরায় অভিযান চলবে। তা ছাড়াও স্বল্প সময়ের মধ্যে ইটভাটা ও করাতকলের বিরুদ্ধে ও অভিযান চলবে বলে জানান তিনি। স্থানীয় চেয়ারম্যানদের মাধ্যমে তাদেরকে সতর্ক করা হয়েছে। সাধারণ জনগনের সাথে কোন ভাবেই প্রতারনা সহ্য করা হবে না। জনগনের নিরাপত্তা, অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে প্রশাসন বদ্ধপরিকর বলে জানান ম্যাজিষ্ট্রট। এ সময় ঈদগাওতে কর্মরত একদল সাংবাদিক, ঈদগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছৈয়দ আলম, জালালাবাদ চেয়ারম্যান ইমরুল হাসান রাশেদ,এস আই দেবাশীষ সরকার, জেলা যুবলীগ নেতা হুমায়ন কবির চৌধুরী হিমু,জালালাবাদের প্যানেল চেয়ারম্যান ওসমান সরওয়ার ডিপো সহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

Top