৩ দিনের ব্যবধানে চালের দাম বেড়েছে কেজিতে ৩ টাকা

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১:৪২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০

মোস্তাকিম হোসেন,হিলি স্থলবন্দর সংবাদদাতা :

দিনাজপুরের হিলিতে ৩ দিনের ব্যবধানে প্রতি কেজি চালের দাম বেড়েছে কেজিতে ৩ টাকা। তিনদিন আগে যে চাল ছিলো ৩৮ টাকা তা বর্তমান খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৪১ টাকা কেজি দরে।

ধানের দাম বেশি হওয়ায় চালের দাম বেড়েছে বলে জানিয়েছেন চাল ব্যবসায়ীরা। হঠাৎ চালের দাম বাড়ায় বিপাকে পড়ছে খেটে খাওয়া মানুষগুলো।

আজ শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সকালে হিলি চালের বাজার ঘুরে জানা গেছে, ৩দিন আগে অটোমিলের চালের দাম বাজারে যা ছিলো তা গড়ে প্রতিটি চালের দাম খুচরা বাজারে বেড়েছে কেজি প্রতি ৩ টাকা। ৩দিন আগে ২৮ জাতের চালের দাম ছিলো কেজি প্রতি ৩৮ টাকা তা বর্তমান পাইকারী ৪০ টাকা,খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৪১ টাকা কেজি দরে। অটো ২৮ ছিলো ৪৩ টাকা, বর্তমান পাইকারী ৪৫ টাকা, খুচরা বাজার ৪৬ টাকা। নাজির শাল চাল ছিলো ৪২ টাকা তা বর্তমান পাইকারী ৪৩ টাকা,খুচরা দাম ৪৫ টাকা। মিনিকেট চালের দাম ছিলো ৪৭ তা বর্তমান পাইকারী বাজারে ৪৮ টাকা, খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা, স্বম্পা কাটারি ছিলো ৪৭ বর্তমান পাইকারী ৪৮ টাকা এবং খুচরা বাজারে বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা কেজি দরে।

হিলি বাজারে চাল কিনতে আসা ভ্যানচালক গোলাম রাব্বানী বলেন, বাজারে চাল কিনতে এসে হিসাব মিলাতে পারছি না। তিনদিন আগে যে দামে চাল কিনেছিলাম আজ দেখি সেই চাল প্রতি কেজিতেই ৩ টাকা বেশি। বাড়িতে ৬ জন খানেওয়ালা, প্রতিদিন তিন কেজি চাল লাগে। এভাবে যদি চালের দাম বাড়তে থাকে তাহলে কিভাবে সংসারের চাহিদা মেটাবো।

বাজারের খুচরা চাল ব্যবসায়ী নিখিল দাস বলেন, হঠাৎ করে চালের দাম বেশি হওয়ায় প্রতিটি চাল ক্রেতাদের সাথে কথা কাটাকাটি হচ্ছে। বেশি দামে চাল কিনছি তাই বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।

হিলি বাজারের চাল পাইকার ব্যবসায়ী স্বপন পাল বলেন, তিনদিনের ব্যবধানে পাইকারী বাজারে বেড়েছে প্রতি কেজি চালের দাম ২ থেকে ৩ টাকা। তবে বর্তমান অটো মিলে চালের দাম আরও ২ টাকা বেশি। আমাদের এই চাল আগের ক্রয় করা তাই কম দামে বিক্রি করতে পারছি। এখন মিল থেকে চাল ক্রয় করলে আরও বেশি দামে বিক্রি করতে হবে।
তিনি আরও বলেন, দিনাজপুরের সেতাবগঞ্জের জহুরা অটোমিল এবং ঠাকুরগাঁ ভাইভাই অটো রাইস মিল থেকে আমরা চাল ক্রয় করে থাকি। সেই মিলগুলোতে বর্তমান চালের দাম বেশি। মিল মালিকরা তাকে জানিয়েছেন ধানের দাম বেশি হওয়ায় চালের দাম বেশি হয়েছে।