স‍্যালুট জানাই এলিসা গ্রানাটোকে

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১০:৫৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৫, ২০২০

———————–
এলিসা গ্রানাটো একজন তরুণী যিনি অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির একজন অণুজীব বিজ্ঞানী।পৃথিবীর বুক থেকে আজ পর্যন্ত প্রায় দুই লক্ষ মানুষের জীবন ঝড়ে গিয়েছে মহামারী করোনা ভাইরাসের ছোবলে যে রোগের কোনো ঔষধ এখন পর্যন্ত কোনো দেশের বিশেষজ্ঞ ডাক্তার,বৈজ্ঞানিক কেউ আবিষ্কার করতে পরেনি।কেননা যে কোনো ধরণের রোগ কিংবা মহামারী দেখা দিলে এর জন্য কোনো ঔষধ,ভ‍্যাকসিন তৈরি হতে প্রায় দুই বছরের বেশি সময়ের প্রয়োজন হয়ে থাকে বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ মহোদয়ের বিশ্লেষণে দেখা যায়। তবুও করোনা ভাইরাসের ভ‍্যাকসিন তৈরি করতে বিশেষজ্ঞরা অনেক গবেষণা করেছেন এবং এক পর্যায়ে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছেন। কিন্তু এই ভ‍্যাকসিন কাকে প্রথম দেওয়া হবে এবং পরীক্ষা করা হবে?যখনই ভ‍্যাকসিন নিয়ে গভীর ভাবে চিন্তা করছেন গবেষকরা তখনই এই এলিসা গ্রানাটো তরুণী ছুটে এসেছেন এবং নিজের দেহের মধ্যে ভ‍্যাকসিন দিতে রাজি হয়েছেন।

Advertisement

জীবনের মায়া মমতা না করে পৃথিবীর সকল মানুষের জীবনের কথা চিন্তা করেছেন এই মহৎ তরুণী এলিসা গ্রানাটো। তিনি মানুষের জীবনের কথা ভেবেছেন অথচ নিজের জীবনের মায়া একটু ও করেননি।আমি স‍্যালুট জানাই এলিসা গ্রানাটো আপনাকে।ভ‍্যাকসিন বিশেষজ্ঞ দল এলিসা গ্রানাটোকে বলেছেন এই ভ‍্যাকসিন যদি উপযুক্ত করোনা ভাইরাসের জন্য না হয় তাহলে আপনি মৃত্যু বরণ করবেন আর যদি উপযোগী হয় তাহলে কোনো ক্ষতি হবেনা আপনার।এলিসা গ্রানাটো এসব কথা শুনেও ভ‍্যাকসিন শরীরের মধ্যে দিতে কোনো ধরণের আপত্তি করেনি।বরং ভ‍্যাকসিন দিতে রাজি হয়েছেন শুধুমাত্র কোটি কোটি মানুষের জীবনের কথা ভেবেই। প্রথমে তার দেহেই পুশ করা হয়েছে করোনার ভ‍্যাকসিন। ভ্যাকসিনটি কাজ না করলে মৃত্যু হতে পারে জেনেও তিনি এই ঝুঁকি নিয়েছেন। হে আল্লাহ তাআলা আপনি সবকিছুই পরিচালনা করেন, তাই আপনার ইশারায় সবকিছু হয়ে থাকে আপনি ভালো ও সুস্থ্য রাখবেন এলিসা গ্রানাটোকে।আপনার উপর আমাদের সকলের বিশ্বাস আছে।

আমরা আমাদের জীবনকে অনেক বেশি ভালবাসি, কিন্তু এলিসা গ্রানাটো কি তার জীবনকে ভালো বাসেন না?আমার জীবনের মাধ্যমে যদি কোটি কোটি মানুষের জীবন বেঁচে যায় তাহলে আমার জীবনের চিন্তা করিনা এভাবেই হাসিখুশি ভাবেই নিজের শরীরের মধ্যে করোনা ভাইরাসের ভ‍্যাকসিন পুশ করেছেন ইনজেকশনের মাধ্যমে।এমন কোটি কোটি মানুষের জীবন‌ বাঁচানোর আন্তরিক তাগিদই ছুটে এসেছেন এলিসা গ্রানাটো।সত্যিই তাকে যেনো এই পরীক্ষামূলক ভ্যাকসিন নিজের শরীরে নিতে অনেক বেশি অনুপ্রাণিত করেছে।।এলিসা গ্রানাটো মনে করেন মানুষকে ভালবাসার চেয়ে বড় ধর্ম আমার জীবনে আর কি হতে পারে?অবশ্যই অন্য কিছু নেই।আমরা কোটি কোটি মানুষ সকল মানব জাতির পক্ষ থেকে এলিসা গ্রানাটোকে জানাই অভিনন্দন ও শুভ কামনা।এছাড়াও মহান আল্লাহর কাছে জানাই দোয়া যেনো রব্বুল আলামীন পরোয়ার দেগার এলিসা গ্রানাটোকে ভালো ও সুস্থ্য রাখেন।আমীন ইয়া রব্বুল আলামীন।

——–
লেখক :
সাংবাদিক মোঃ ফিরোজ খান