সুবিধাবঞ্চিত এবং মেধাবী শিক্ষার্থীদের ভর্তি সহায়তা দিবে “মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন”।

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৫:৫২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৯, ২০২০

রাজু,আহমেদ,ঢাবিঃ

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে দরিদ্র, মেধাবী এবং পড়াশুনায় আগ্রহী শিক্ষার্থীদের ভর্তি সহায়তা দিবে মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন। বরাবরের মতো এবারও ভর্তি সহায়তায় থাকছে প্রাথমিকভাবে অনলাইনে ভর্তি ফি, প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হওয়ার পর ভর্তি নিশ্চায়নের ফি, চুরান্তভাবে কলেজ ভর্তি ফি এবং বই ক্রয়ের জন্য অর্থ সহায়তা।

প্রতি বছরই আমাদের দেশে অর্থের অভাবে ঝরে হাজারো শিক্ষার্থীর বেড়ে ওঠার ন্বপ্ন। সদ্য স্বপ্ন পূরণের সিঁড়িতে পা দিয়ে যেন হোচট খেয়ে পড়ে যায় অগনিত শিক্ষার্থী। অর্থের অভাব তাদের লালিত স্বপের পূর্ণতা পাওয়া পথে প্রধান প্রতিবন্ধকতা হিসেবে দাঁড়ায়।আর এখানেই ইতি ঘটে অপার সম্ভাবনাময় শিক্ষার্থীর স্বপ্নগুলোর।মেধা এবং প্রচন্ড আগ্রহ আছে কিন্তু অর্থের অভাবে যাতে আর কোনো শিক্ষার্থীর স্বপ্ন ঝরে না পড়ে। সে লক্ষ্যে অপার সম্ভাবনাময় শিক্ষার্থীদের লালিত স্বপ্নকে পূর্ণতা দিতে ভর্তি সহায়তা নিয়ে এগিয়ে আসছে মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন। দেশের যেকোন অঞ্চলের দরিদ্র এবং মেধাবী শিক্ষার্থী ভর্তি সহায়তার জন্য নিম্নোক্ত নিয়ম মেনে আবেদন করতে পারবে।

ভর্তি সহায়তা হিসেবে যা যা থাকছেঃ
১। প্রাথমিকভাবে অনলাইনে আবেদন ফি-১৫০ টাকা।
২। প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত হওয়ার পর ভর্তি নিশ্চায়নের জন্য ২০০ টাকা আবেদন ফি।
২। কলেজে চুরান্ত ভর্তির ফি বাদ ২৭০০-৩৫০০ টাকা
৩। এবং বই ক্রয়ে সহায়তা। সব মিলিয়ে প্রতিটি শিক্ষার্থীকে ৩-৫ হাজার টাকা ভর্তি সহায়তা দিবে মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন। এবং বিশেষ বিবেচনায় বেসরকারি কলেজে আবেদনকারীদের আবেদন গ্রহণ করা হবে।

আবেদনের যোগ্যতাঃ
১। নূন্যতম জিপিএ(এস.এস.সি.) -৪.৫০ (বিজ্ঞান, মানবিক ও বানিজ্য)
২) সুবিধাবঞ্চিত এবং মেধাবী শিক্ষার্থীরাই কেবল আবেদন করতে পারবে।
৩। শিক্ষার্থীকে অবশ্যই পড়াশুনায় আগ্রহী,মনোযোগী এবং ব্যাক্তিগত জীবনে সৎ থাকতে হবে।

ভর্তি সহয়তা পেতে নিচের গুগল ফর্মে প্রয়োজনীয় তথ্য (ইংরেজীতে) দিয়ে প্রাথমিকভাবে আবেদন করতে হবে। প্রাথমিকভাবে আবেদনের জন্য গুগল ফর্মের লিংক- https://docs.google.com/forms/d/1VIpuv10GRQupc5i7mtK_eRAf89EeADp_1WtZtuXsnto/viewform?usp=sharing_eip&ts=5f3abb79&edit_requested=true

প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের সাথে মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন যোগাযোগ করে পরবর্তী নির্দেশনা প্রদান করবে। উল্লেখ্য যে, যারা ফর্ম ফিলাআপের জন্য নির্বাচিত হয়েছিল তাদের পুনরায় আবেদন করার প্রয়োজন নেই। তাদের সাথে ইতিমধ্যে যোগাযোগ করা হয়েছে।

একাদশ শ্রেণির ভর্তি সহায়তায় এগিয়ে আসা মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা এবং সভাপতি ড. চন্দ্র নাথ যিনি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়(বুয়েট) থেকে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর শেষ করে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ম্যানুফ্যাকচারিং হাই-টেক স্টার্ট আপ “মেইকার” কোম্পানির কো-ফাউন্ডার এবং সিটিও হিসেবে কর্মরত আছেন। তাছাড়াও স্বনামধন্য পারডু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিজিটিং স্কলার হিসেবে কাজ করছেন। মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের এমন মহৎ কাজ নিয়ে ফাউন্ডেশনের সভাপতির সাথে কথা বললে তিনি জানান ফাউন্ডেশনের উৎপত্তি, বেড়ে ওঠা এবং কি উদ্দেশ্যে এর যাত্রা। তিনি ভর্তি সহায়তা বিষয়ে বলেন, ” আমাদের দেশে অনেক মেধাবী শিক্ষার্থী আছে যারা সঠিক দিকনির্দেশনা এবং অর্থের অভাবে তাদের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌছতে পারেনা। মেধাবী আর প্রবল ইচ্ছা শক্তি থাকলেও অর্থের অভাবে তাদের স্বপ্নগুলো অকালে ঝরে পড়ে।। তারা তাদের স্বপ্নকে বাস্তবে পূর্ণতা দিতে পারেনা। আমি নিজেও জীবনের অনেক নিষ্ঠুর এবং ভয়ংকরতম বাস্তবতাগুলো দেখে বড় হয়েছি। অনেক শিখেছি জীবনের কাছ থেকে। এখনও প্রতিনিয়তই শিখছি। আমি চাইনা আমার দেশের শিক্ষার্থীদের স্বপ্নগুলো ভেঙ্গে যাক। অকালে ঝরে পড়ুক অপার সম্ভাবনাময় সোনালী স্বপ্নগুলো। তাই মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশ দেশের মেধাবী মুখগুলোকে, তাদের স্বপ্নগুলোকে বাঁচিয়ে রাখতে, তাদের স্বপ্নগুলোর পূর্ণতা দিতে ভর্তি সহায়তা প্রকল্প চালু করেছি এবং মেধাবী শিক্ষার্থীদের কল্যাণে কাজ করছি। আমি চাইনা কোনো শিক্ষার্থীর পড়াশুনা অর্থের অভাবে বন্ধ হয়ে যাক। এই ফাউন্ডেশ গড়ে ওঠার পেছনে রয়েছে এমন শত শত গল্পের সমাহার। আমি চাই প্রতিটি স্বপ্ন বেঁচে থাকুক”।

একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি সহায়তা প্রোগামের সমন্বয়ক, শাকিল আনোয়ার বলেন, “এস এস সি পরিক্ষার পরে সুবিধাবঞ্চিত কিন্তু মেধাবী এরকম বড় অংশের(বিশেষত মেয়েরা) শিক্ষার্থী ঝরে পড়ে কলেজ ভর্তি, বই কেনা ও পড়াশোনার খরচ বহন করতে সক্ষম না থাকায়। অথচ এরা একটু সুযোগ পেলেই অনেক ভালো করবে পড়াশোনায়। বিগত বছরগুলোতে আমরা এরকম বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী পেয়েছি। আমরা চাই তাদের একটা সুযোগ করে দিতে, তাদের পাশে দাঁড়াতে। ভর্তি সহায়তার পাশাপাশি আমরা শিক্ষার্থীদের মাসিক বৃত্তি দিয়ে থাকি। কিছু সৎ, দেশের প্রতি দায়িত্ববান মানুষ তৈরি করতে কাজ করে যাচ্ছি আমরা।”

প্রসঙ্গত “মানুষ মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন” একটি আমেরিকান ভিত্তিক এবং অরাজনৈতিক স্বেচ্ছাসেবী বাংলাদেশি সংগঠন। সংগঠনটি বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে থাকা সুবিধাবঞ্চিত, দরিদ্র,অসহায় মানুষকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করে যাচ্ছে। এবং বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের শিক্ষাসহায়তা দিয়ে থাকে যাতে প্রতিটি শিক্ষার্থী তাদের লালিত স্বপ্নের পূর্ণতা দিতে পারে এবং আত্মমর্যাদা নিয়ে বাঁচতে পারে। বাংলাদেশে শিক্ষা, চিকিৎসা সহায়তা ও জরূরী ত্রাণ বিতরণের মাধ্যমে সংগঠনটি সারা দেশ ব্যাপী সুনাম কুড়িয়েছে।