সুন্দরগঞ্জে শত্রুতার আগুনে পুড়ে মরলো ৬টি গরু

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৬:১৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০২০

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি:

Advertisement

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে পারিবারিক শত্রুতার কারণে মেহের আলীর (৫৫) গোয়াল ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে শফিকুল ইসলাম শফিকের (৩০) বিরুদ্ধে। এতে ঘটনার সময় মারা যায় ৬ গরু ও গুরুত্বর আহত হয় আরও তিনটি। রক্ষা পায়নি হাঁস-মুরগি ও গোয়াল ঘর। মঙ্গলবার (০৭ জুলাই) দিবাগত রাত সাড়ে বারোটার দিকে উপজেলার দহবন্দ ইউনিয়নের পশ্চিম ঝিনিয়া গ্রামে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন থানা পুলিশ। মেহের আলী ওই গ্রামের মৃত নওশের আলীর ছেলে ও শফিকুল ইসলাম শফিক প্রতিবেশি আ. খালেক মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে ভোরে আঃ খালেক মিয়াকে আটক করে থানা পুলিশ।

জানা যায়, রাত সাড়ে বারোটার দিকে ছেলে আতোয়ার রহমানের চিৎকারে ঘুম ভাঙ্গে মেহের আলীর। তখন আগুন ছাড়া আর কিছুই দেখতে পাননি তিনি। পরে প্রতিবেশিরা ছুটে এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই ৬টি গরু মারা যায় এবং অগ্নিদগ্ধ হয় আরও তিনটি। এছাড়াও গোয়ালসহ হাঁস-মুরগি ভষ্মিভূত হয়। ছয় থেকে সাত লক্ষ টাকার মালামাল ভষ্মিভূত হয়েছে বলে আনুমানিক ধারণা করা হচ্ছে।

মেহের আলী জানান, শফিকুল ইসলামের সাথে দীর্ঘদিন থেকে তার বিরোধ চলে আসছে। মামলাও রয়েছে একাধিক। গত কয়েকদিন আগে জেল থেকে ছাড়া পায় শফিকুল ইসলাম ও তার লোকজন। এরপর থেকেই আমাকে নিঃস্ব করাসহ নানা হুমকিও দেয় তারা। এ অগ্নিকান্ডে শফিকুল ইসলামের হাত রয়েছে উল্লেখ করে মেহের আলী দোষীদের আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবী জানান।

পারিবারিক বিরোধের বিষয়টি নিশ্চিত করে অভিযুক্ত শফিকুল ইসলাম মোবাইল ফোনে বলেন, এ অগ্নিকান্ডের সাথে তার বা তাদের কোন সম্পৃক্ততা নেই। আমাদের হয়রানি করার জন্য তারা এ মিথ্যা অপবাদ ছড়াচ্ছে।

থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল্লাহিল জামান ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে বিষয়টি মর্মান্তিক উল্লেখ করে বলেন, মামলা প্রক্রিয়াধীন। এ বিষয়ে আমরা বেশ তৎপর রয়েছি। প্রকৃত দোষীদের খুব দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।