সুন্দরগঞ্জে মেয়েকে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় বাবাকে মারপিট

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১:৪৯ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৯

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি:

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে মেয়েকে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় বাবাকে মারপিট করেছে বখাটেরা। এ ঘটনায় আহত বাবা মোখলেছুর রহমান উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

স্বজনরা জানান, মারপিটের শিকার মোখলেছুর রহমান সুন্দরগঞ্জ উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা। স্থানীয় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নবম শ্রেণিতে পড়া তার কন্যাকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করে মাহফুল ইসলাম মুন্না নামের যুবক। দহবন্দ ইউনিয়নের জরমনদী গ্রামের চান মিয়া মিস্ত্রীর ছেলে মুন্নার কর্মকাণ্ডে অতীষ্ট হয়ে পড়ে পরিবারটি।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মোখলেছুর রহমান দহবন্দ ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন সরকারি বাসভবনে অবস্থান করছিলেন। এ সময় বাসার সামনে বখাটে মুন্নাকে ঘোরাফেরা করতে দেখে সেখানে অবস্থানের কারণ জানতে চান তিনি। তখন মুন্না প্রশ্নের জবাব না দিয়ে গালিগালাজসহ মারমুখী আচরণ করতে থাকে।

তর্কের জের ধরেই এক সময় উভয়ের মধ্যে ধস্তাধস্তি শুরু হয়। এ সময় ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে দুজনকেই থানায় নিয়ে যায়।
এদিকে ঘটনার বিস্তারিত জেনে পুলিশ পরে মোখলেছুরকে ছেড়ে দেয়। মোখলেছুর একাকী বাসায় ফেরার সময় মুন্নার সহযোগীরা পথরোধ করে এলোপাথাড়ি মারপিট করতে থাকে। স্থানীয়রা আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।

সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুস সোবাহান জানান, ঘটনার ব্যাপারে মোখলেছুর রহমান বাদী হয়ে মুন্নাসহ ৬ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। মুন্নাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।