ঢাকাবুধবার , ২৪ এপ্রিল ২০২৪
  1. সর্বশেষ
  2. সারা বাংলা

পঞ্চগড়ে শরতে উত্তরের আকাশে উঁকি দিচ্ছে শুভ্র কাঞ্চনজঙ্ঘা

প্রতিবেদক
নিউজ এডিটর
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:১৯ অপরাহ্ণ

Link Copied!


মো.সফিকুল আলম দোলন, পঞ্চগড় প্রতিনিধি ঃ

এখন শরৎকাল । শরতে সাদা শুভ্র মেঘ ভেসে বেড়ায় উত্তরের আকাশে । কয়েকদিন আগে নি¤œ চাপ থেকে সৃষ্টি হওয়া বৃষ্টি উত্তরের আকাশকে নির্মল করে গেছে । কোথাও কালো মেঘের ভেলা নেই । দূর আকাশে সাদা মেঘের ভেলা । সাদা শুভ্র মেঘের ফাঁকে শরতে উত্তরের আকাশে উঁকি দেয়া শুরু করেছে শুভ্র লীলাভ কাঞ্চনজঙ্ঘা। বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকেই কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখা গেছে। এ সময় স্থানীয়রা স্মার্টফোনে ছবি তুলে ফেসবুকে পোস্ট করেন।

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া থেকে স্থানীয় আব্দুর রাজ্জাক বলেন,আকাশ মেঘলা না থাকায় গত কয়েকদিনের বৃষ্টির পর কাঞ্চনজঙ্ঘার দূর্লভ দৃশ্যের উঁকি দেখা মিলছে । এ বছর বৃহস্পতিবার(২২ সেপ্টেম্বর) প্রথম কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখা গেল। পর্যটকদের জন্য এটি আনন্দের সংবাদ। কারণ হিমালয়-কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখতে প্রতি বছর পাসপোর্ট-ভিসা করে নেপালে গিয়ে দেখতে হয়। আর সেখানে কোনো পাসপোর্ট-ভিসা ছাড়াই তেঁতুলিয়ায় এসে জেলা পরিষদ ঐতিহাসিক ডাকবাংলোর পিকনিক কর্নার থেকে খালি চোখে দেখা যায় । আকাশ মেঘলা না থাকলে সেপ্টেম্বরের শেষের দিনগুলোতে মাঝে মাঝে উঁকি দেয় শুভ্র কাঞ্চনজঙ্ঘা ।

স্থানীয়রা জানায়, প্রতি বছর আকাশ মেঘলা না থাকলে সেপ্টেম্বর মাসের শেষের দিনগুলোতে উঁকি দেয় শুভ্র কাঞ্চনজঙ্ঘা আর অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত পঞ্চগড়ের বিভিন্ন এলাকা থেকে খালি চোখে কাঞ্চনজঙ্ঘার অপরূপ সৌন্দর্য দেখা যায়। ছবির মতো ভেসে উঠা শুভ্র কাঞ্চনজঙ্ঘার অপরূপ দৃশ্য ছাড়াও দেখা মেলে প্রতিবেশী দেশ ভারতের দার্জিলিংয়ের বিভিন্ন পাহাড়ি অঞ্চল। কেন এত কাছে হিমালয়-কাঞ্চনজঙ্ঘা ?
পঞ্চগড়ের চতুদের্শীয় বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর থেকে নেপালের দূরত্ব মাত্র ৬১ কিলোমিটার, এভারেস্ট শৃঙ্গের দূরত্ব ৭৫ কিলোমিটার, ভুটানের দূরত্ব ৬৪ কিলোমিটার, চীনের দূরত্ব ২০০ কিলোমিটার, ভারতের দার্জিলিংয়ের দূরত্ব ৫৮ কিলোমিটার, শিলিগুড়ির দূরত্ব ৮ কিলোমিটার আর কাঞ্চনজঙ্ঘার দূরত্ব মাত্র (আকাশ পথে) ১১ কিলোমিটার। এত বেশি কাছে থাকার কারণে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ার বিভিন্ন স্থানে অবস্থান করে কাছ থেকে উপভোগ করা যায় কাঞ্চজঙ্ঘার সৌন্দর্য।

জানা গেছে, কাঞ্চনজঙ্ঘা হিমালয় পর্বতমালার পর্বতশৃঙ্গ। মাউন্ট এভারেস্ট ও কেটুর পরে এটি পৃথিবীর তৃতীয় উচ্চতম পর্বতশৃঙ্গ। যার উচ্চতা ৮ হাজার ৫৮৬ মিটার (২৮ হাজার ১৬৯ ফুট)। এটি ভারতের সিকিম রাজ্যের সঙ্গে নেপালের পূর্বাঞ্চলীয় সীমান্তে অবস্থিত। হিমালয় পর্বতের এই অংশটিকে কঞ্চনজঙ্ঘা হিমালয় বলা হয়। কাঞ্চনজঙ্ঘা মাউন্ট এভারেস্টের ১২৫ কিমি পূর্ব-দক্ষিণ-পূর্ব দিকে অবস্থিত। এটা হিমালয়ের দ্বিতীয় উচ্চতম শৃঙ্গ।

156 Views

আরও পড়ুন