সারাবান তহুরার কবিতা-উপহার

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১২:৩১ পূর্বাহ্ণ, জুন ২৩, ২০২০

————————
ভেবেছি একটি কবিতা দিব উপহার
যেখানে এক ঝুড়ি দুঃখ ভালোবাসার হবে সমাহার
কত কিছু শুনেছি,দেখেছি,মনে পরে বাবা।
আজ না হয় সবকিছু ঠাই পাক কবিতায়,
কথা বলতে জানিনা এক,দু-পা চলছি কেবল
পাঁচ, দশ,একুশ কতটা বছর।

তোমার চাকরি জীবন শেষ সময়টা অবসর
এখন আর পকেটে পয়সার আওয়াজ বাজে না,
যখন তখন আবদার যায় না বলা
তোমাকে কোনো কাজে নেই প্রয়োজন
চলে যাও বৃদ্ধাশ্রমে!

ছোটো সংসার চলতো ভ্যানগাড়ির আয়ে
মনের আনন্দে চালাতে বেশ।
দাড়ি পেকে গেল,চামড়াতে ভাজ পড়লো
বুড়ো হলে কেন? খাবারে টানাপোড়া এলো।

প্রভাসী জীবন দূর্ঘটনায় হারালো চোখ,
শুরো হলো পরিবারের ঝাড়াঝাড়ি।

জমি ছিল ষোলো বিঘা সপ্নের এক বাড়ি,
জমি গেলো,বাড়ি গেলো লাখের উপর লাখ
ছেলে-মেয়ে খুবই উচ্চশিক্ষিত,
এখন তারা সভ্যতার মোড়কে মোড়ানো
বাবা তোমার কিছু নেই সভ্যতায় তুমি বেমানান।
ছনের একটি ঘরে বুড়োদের সাজে!

এমনি ভালোবাসাহীন অযত্নে পরে থাকা,
হাজারো বাবার গল্প,কবিতা ধুলোমাখা
তাদের নিয়ে লিখা যেনো সময়ের অবহেলা।