সাপাহারে ৫০০ কোটি টাকার আম বাণিজ্য!নিদিষ্ট স্থানে আম বাজারের দাবি

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৩:১৫ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২২, ২০২০

গোলাপ খন্দকার সাপাহার (নওগাঁ)প্রতিনিধিঃ

দেশের সর্ববৃহৎ আমের বাজার, আমের রাজধানী নামে খ্যাত নওগাঁর সাপাহারে জমে উঠেছে আমের জমজমাট আম বাজার এবার ৫’শ কোটি টাকার আম বাণিজ্যের সম্ভাবনা রয়েছে এই আম বাজারে। নিদিষ্ট কোন আম বাজার না থাকায় উপজেলা সদরের প্রায় সব রাস্তায় যানজট লেগেই রয়েছে। তাই নিদিষ্ট স্থানে দ্রুত আম বাজার স্থাপন এবং পূর্ব পরিকল্পনা করে এই সমস্যা সমাধানের দাবি জানান এলাকাবাসী ।

সরেজমিনে দেখাগেছে, প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে শুরু করে সন্ধ্যা পর্যন্ত চলছে আম কেনাবেচা। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ব্যবসায়ীগণ এসেছে সাপাহার উপজেলার আম বাজারে। আড়তগুলোতে বাড়ছে ব্যপারীদের আনাগোনা। উৎসব মূখর হয়ে উঠেছে আড়ত এলাকার চারিপাশ, যেন তিল পরিমান ঠাই নেই। প্রায় ২কিলোমিটার এলাকা জুড়ে বসেছে আমের হাট। আমের দাম ভালো পেয়ে খুশি এলাকার আমচাষীরা।

এবার দেশের অন্যান্ন এলাকায় ঝড়ে আমের ব্যাপক ক্ষতি হওয়ায় আমের দাম ভালোই পেয়েছে এলাকার আম চাষীরা বরেন্দ্র ভূমিতে উৎপাদিত সুমিষ্ট রসালো ফল গোপাল ভোগ, কালিয়া ভোগ, লকনা, চোষা, ল্যাংড়া, ফিরসাপাত, হিমসাগর, নাক ফজলী, বারী ফোর, বারী সেভেন, আম্রপালি সহ বিভিন্ন জাতের আম বেচা-কেনায় জমে উঠেছে আড়ৎগুলো।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় আম বাগান বেড়ে যাওয়া ও অন্যান্ন ৩-৪টি উপজেলার আম চাষীরা ভালো দাম পেয়ে আম নিয় ছুটে আসে এই উপজেলায়। তাই দেশের সর্ববৃহৎ আমের মোকাম গড়ে উঠেছে সাপাহার আম বাজার। এখানে স্থানীয় সহ দেশের বিভিন্ন এলাকার প্রায় সোয়া দুইশত আড়ৎদার প্রতিদিন বাগান মালিকদের কাছ থেকে প্রায় ৮ কোটি টাকার আম বেচা-কেনা করে চলেছে।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সুত্রে জানা গেছে, এবারে এ উপজেলায় আম উৎপাদনের লক্ষ্য মাত্রা ৯৯ হাজার মেট্রিকটন, যার আনুমানিক মূল্য ৫শ’ কোটি টাকা।

আম বাজার মনিটরিং এর জন্য পুলিশ সুপার বিপিএম আব্দুল মান্নান মিয়া’র উদ্যোগে বাজার মনিটরিংয়ের জন্য আম বাজার এলাকায় পুলিশ কন্ট্রোলরুমের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পুলিশ সদস্যদের দিয়ে সারাদিন রাস্তার পরিবহণ গুলো সু-শৃঙ্খলভাবে পার করার চেষ্টা করেন। তবে আম বাহী গাড়ির পরিমান অনেক বেশি হওয়ায় এবং রাস্তার দু-পাশে কাদা জমে থাকায় কোন আমবাহী গাড়ি রাস্তা থেকে নিচে নামতে চায় না তখনি যানজটের সৃষ্টি হয়।

কওমি মাদ্রাসা পাড়ার সোহেল জানান, আমের মৌসুমে আমরা বাড়ি থেকে বের হয়ে বাজারে যাব এরকম কোন সুযোগ থাকে না। এই এলাকার রাস্তা ঘাট খুবই খারাপ হয়ে গেছে , খুবই কাদা আমাদের দাবি নিদিষ্ট স্থানে আম বাজার করা বা রাস্তার দু পাশের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে রাস্তার দু-পাশে ইট দিয়ে হিয়ারিং করে আম বাহী গাড়ি গুলো দাঁড়ানোর সুযোগ করে দিলে এরকম যানজট হবে না তখন রাস্তা থেকে সকল গাড়ি নিচে থাকবে তাই দ্রুত আম বাজারের জন্য সুষ্ঠ পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে।