সাইফুদ্দিন ভান্ডারীর প্রচারণায় নজিবুল বশরের সমর্থকদের হামলা

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৬:০৯ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৮

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি: চট্টগ্রাম-২ ফটিকছড়িতে আসনে ইসলামী ফ্রন্টের প্রার্থী সাইফুদ্দিন মাইজভান্ডারীর নির্বাচনী প্রচারণায় হামলা করেছে তরিকত ফেডারেশনের নজিবুল বশর মাইজভান্ডীরর সমর্থকরা।

হামলাকারীরা ইসলামী ফ্রন্টের নির্বাচনী প্রচারনার সিএনজি অটোরিক্সাসহ ৪টি গাড়ী ভাঙচুর করে। এসময় ইসলামী ফ্রন্টের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন। তাদেরকে স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা দেয়া বলে জানায় ইসলামী ফ্রন্টের নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার (২৫ ডিসেম্বর) বিকেলে উপজেলার বিবিরহাট বাস স্টেশন এবং মনিরা কমিউনিটি সেন্টারের সামনের এলাকায় দু দফায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

ইসলাম ফ্রন্ট প্রার্থী মনোনীত প্রার্থী বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির চেয়ারম্যান সৈয়দ সাইফুদ্দিন আহমদ মাইজভান্ডারী বলেন, সরকার দলীয় নৌকা প্রতীকের কর্মীরা এ হামলা চালিয়েছে।

তিনি বলেন ফটিকছড়ির বিবিরহাট বাসস্টেশন এলাকায় নির্বাচনী প্রচারনা চালানোর সময় ১০/১৫ জনের একটি গ্রুপ ইসলামী ফ্রন্টের শান্তিপূর্ণ প্রচারণায় হামলা করে।

দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত গ্রুপটি হঠাৎ কোন কিছু বুঝে উঠার আগে হামলা চালায়। পরে ইসলামী ফ্রন্টের কর্মী এবং স্থানীয় প্রতিরোধ করলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।

ফটিকছড়ি থানার ওসি বাবুল আকতার হামলার হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তারা ফিরে আসলে বিস্তারিত জানাতে পারবো।

এ দিকে এ ঘটনার পর উপজেলার বাস স্টেশনের মুক্তিযোদ্ধা চত্ত্বরে তাৎক্ষনিক এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিবাদ সমাবেশে ইসলামী ফ্রন্ট প্রার্থী সৈয়দ সাইফুদ্দিন আহমদ মাইজভান্ডারী বলেন, আমরা আজকে দলের চেয়ারম্যানসহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছিলাম। সেখানে সরকারী দলের নৌকার কর্মীরা আমাদের প্রচারনার উপর অতর্কিত হামলা করে।

তিনি এ ঘটনার জন্য ফটিকছড়ির সাংসদ নজিবুল বশরকে দায়ী করেন। প্রতিবাদ সমাবেশে ইসলামী ফ্রন্টের মহাসচিব এম এ মতিন বলেন, ফটিকছড়িতে মোমবাতির পক্ষে গনজাগরন সৃষ্টি হয়েছে।

এ গনজাগরন স্তব্ধ করার শক্তি কারো নেই। আমাদের আদর্শিক কাফেলা, আমরা শান্তিতে বিশ্বাসি। আমরা কারো প্রতি পক্ষ নই। আমরা স্বাধীনতার পক্ষের মানুষ।

প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, প্রচারনায় প্রতি পদে পদে বাধা দেয়া হচ্ছে। কিন্তু আপনারা যদি এটা বন্ধ না করেন তাহলে সারা দেশে যদি আন্দোলন ছড়িয়ে পরে সে জন্য আপনারা দায়ি থাকবেন।

উল্লেখ্য, এই আসনে মহাজোটের মনোনীত নৌকা প্রতিকে নির্বাচন করছেন তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান বর্তমান এমপি নজিবুল বশর। এবার তারই বিরুদ্ধে ইসলামী ফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে মোমবাতি (স্বতন্ত্র) প্রতিকে লড়ছেন সাইফুদ্দিন আহম মাইজভান্ডারী।

এছাড়াও এই আসনে ঐক্যফ্রন্ট মনোনীত বিএনপির ধানের শীষ প্রতিকে আজিম উল্লাহ বাহার ও ইসলামী আন্দোলনের হাতপাখা প্রতিকে লড়ছেন মো.