সরকার বন্দরগুলোকে আধুনিকায়নের ব্যবস্থা করছেন,হিলিকেও গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে,স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান তারিকুল

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৫:৪১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০

মোস্তাকিম হোসেন,হিলি স্থলবন্দর সংবাদদাতা:

আমি মনে করি পেঁয়াজ নিয়ে অস্থিরতা আমাদের মনের। আমাদের দেশে যে পরিমান পেঁয়াজ উৎপাদন হয়েছে, সাম্প্রতিককালে যে পরিমান পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে, যে পরিমান পেঁয়াজ আমাদের স্টকে আছে আমাদের গুদামে আছে। আমাদের পেঁয়াজ নিয়ে হাহকার করার কোন কারন নেই বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ স্থলবন্দর কতৃপক্ষের চেয়ারম্যান কেএম তারিকুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় তিনি স্থলবন্দরের অপারেশন ও উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শনকালে উপোরক্ত কথাগুলো বলেন তিনি।

এসময় তিনি আরো বলেন, আমরা যেসব এলসি করছি, এটা আমরা পাবো, এটা আমাদের অধিকার, এটা আমরা চাই, এটা আমরা চাইবো। একই সাথে ভারত আমাদের বন্ধু দেশ আমাদের প্রতিবেশি দেশ, আমাদের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ন একটা দেশ। দু-দেশের পারস্পরিক সম্পর্ক খুব ভালো এটা পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় ভারতের সাথে যোগাযোগ করে সমাধান করবেন এটা সময় লাগবেনা। তিনি বন্দরের বিভিন্ন অবকাঠামো পরিদর্শন শেষে পানামা হিলি পের্টের সভাকক্ষে বন্দর পরিচালনা কারি প্রতিষ্ঠান,বিজিবি কর্তৃপক্ষ, আমদানি-রফতানিকারক, সিএন্ডএফ এজেন্টসহ বন্দর ব্যবহারকারীদের সাথে বৈঠক করেন। বৈঠকে সড়কসহ বন্দরের সমস্যাগুলো সমাধানের আশ্বাস দেন তিনি।

এসময় সেখানে ২০ বিজিবির অধিনায়ক ফেরদৌস হাসান টিটু, হাকিমপুর উপজেলা চেয়াম্যান হারুন উর রশিদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুর রাফিউল আলম, কাস্টমসের ডেপুটি কমিশনার সাইদুল আলম, পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত, থানার অফিসার ইনচার্জ ফেরদৌস ওয়াহিদ,প্রেসক্লাবের সভাপতি গোলাম মোস্তাফিজার রহমান মিলনসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

পরিদর্শন শেষে বাস্তবক চেয়রম্যান তরিকুল ইসলাম জানান, হিলি স্থলবন্দরের গুরুত্ব বিবেচনা করে বন্দরের আমদানি-রফতানি আরো গতিশীল কি ভাবে করা হবে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সরকার বন্দরকে আধুনিকায়নের ব্যবস্থা করেছেন এবং হিলিকে গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।