শিক্ষার্থীদের বাসা ভাড়া সমস্যা সমাধান কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে জবি ছাত্রলীগ।

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১২:২৯ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

শিক্ষার্থী বাড়িভাড়া সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যায় পড়লে তার সুষ্ঠু সমাধানে পাশে থাকবে ছাত্রলীগ। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য  এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানান।

 

সম্পূর্ণ অনাবাসিক হওয়ার ফলে জবির প্রায় শতভাগ শিক্ষার্থীকে থাকতে হয় মেসবাড়িতে। আর সিংহভাগ শিক্ষার্থীই অতিরিক্ত এই মেস ভাড়ার যোগান দেন টিউশনি, কোচিং-এ ক্লাস করিয়ে কিংবা পার্টটাইম জব করে। এমনকি অনেক শিক্ষার্থী পরিবারের আর্থিক সংকটের কারণে সংসার খরচেও এই আয় থেকে অর্থের যোগান দিয়ে থাকেন।

বর্তমানে তাদের সকল আয়ের উৎসও বন্ধ। ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করছেন শিক্ষার্থীরা। এছাড়াও করোনা সংকটের কারণে ঢাকায় এসে মিলবে না টিউশন কিংবা পার্টটাইম জব। প্রশাসন থেকে সমাধান মিলবে এই আশায় কয়েকমাসের মেসভাড়াও দেননি অনেক শিক্ষার্থী। এছাড়াও বাড়ি থেকে যারা মেস ভাড়া নেন তাদের অনেকেরই পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষমের টাকায় যাদের পড়াশোনা ও মেসভাড়া চলতো, সেসব মধ্যবিত্ত ও নিন্ম মধ্যবিত্ত শিক্ষার্থীরা পড়েছেন চরম বিপাকে। সবমিলিয়ে এই সংকটময় মুহুর্তে মেসভাড়া এখন গোঁদের উপর বিষফোঁড়া হয়ে দাঁড়িয়েছে শিক্ষার্থীদের জন্য।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, সম্প্রতি দেখা যায়, বা‌ড়ি ভাড়া দিতে বিলম্ব হওয়ায় বিনা নোটিশে কয়েকজন শিক্ষার্থীর সার্টিফিকেটসহ মূল্যবান জিনিসপত্র ভাগাড়ে ফেলে দেওয়া হয়েছে, যা কখনোই কাম্য নয়। ওই ঘটনায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পরিবার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছে।

বাড়ির মালিকদের প্রতি অনুরোধ করে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ‘আপনারা জানেন, বৈশ্বিক করোনা প্রাদুর্ভাবের কারণে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এতে অনেক শিক্ষার্থী ভাইবোন করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে যে যার মতো নিরাপদে নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করছেন। করোনাকালে আমাদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সচেতনতা অবলম্বন করা, বাড়িতে নিরাপদে থাকা এবং এ কারণে অনেক শিক্ষার্থী ভাইবোন বাড়িওয়ালা ও মেস মালিকদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করতে পারছে না।

সুতরাং বিদ্যমান করোনা সংকটে শিক্ষার্থী ভাইবোনদের সঙ্গে অমানবিক আচরণ না করে তাদের প্রতি সদয় হয়ে যৌক্তিক ও সুষ্ঠু সমাধানের জন্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সকল বাড়িওয়ালা ও মেস মালিকদের প্রতি অনুরোধ জানানো হচ্ছে। ’

এ বিষয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন-জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ‘বাড়ির মালিকদের সঙ্গে আলোচনা করে যৌক্তিক সমাধানের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করে সমাধান করছে।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে যেকোনো যৌক্তিক আন্দোলনে, যৌক্তিক বিষয়ে শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শিক্ষার্থীদের পাশে আছে এবং যেকোনো মানবিক, যৌক্তিক বিষয়ে সুষ্ঠু সমাধানের জন্য বদ্ধপরিকর। ’