শিক্ষক দিবসে সশ্রদ্ধ সালাম–ছামির আলী ভূঁইয়া

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৪:৪৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৪, ২০১৯

——–
‘‘A great teacher is like a candle— it consumes itself to light the way for others.’’
শিক্ষকরা ঠিক মোমবাতির মতোই, ওনারা আমাদেরকে মানুষের মতো মানুষ হয়ে গড়ে তোলার জন্য সর্বদা সবকিছু এড়িয়ে ওনাদের দায়িত্ব পালন করেন। পিছন ঘুরে দেখলে বুঝি শিক্ষকের অবদান। বাবা-মা ছাড়া শিক্ষকই একমাত্র মানুষ হন যাদের সবচেয়ে বেশি অবদান থাকে আমাদের জীবন গঠনে।
শিক্ষক দিবসে সশ্রদ্ধ সালাম!
আমাদের প্রত্যেকের জীবনেই কোন না কোন শিক্ষক থাকেন যাকে আমরা খুব পছন্দ করি। যাঁকে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য আমরা এই দিনটার দিকে তাকিয়ে থাকি।
“কীর্তিমানের মৃত্যু নেই” এমন একটি প্রবাদ আমরা সকলেই পড়েছি। এমনই কিছু কীর্তিমান শিক্ষক আমি দেখেছি। তন্মধ্যে আমি আমার শিক্ষাজীবনে কয়েকজন শিক্ষকের কথা উল্লেখ করছি।

আমার শিক্ষাজীবন শুরু হয় প্রত্যন্ত অঞ্চলের একটি ছোট মাদ্রাসা “ইনআমিয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও নূরানী একাডেমী”র নূরানী বিভাগ থেকে। ঐ মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক শ্রদ্ধেয় জনাব হাঃ মাওলানা আব্দুল হক সাহেব হুজুর,যিনি বর্তমানে আবুধাবি একটি মসজিদের পেশ ইমাম ও খতিব হিসেবে কর্মরত আছেন। উনি আমাকে প্রথম সহীহ্ কুরআন শিক্ষা দিয়েছেন। এবং এখন আমিও ওনার শিখানো কায়দায় আমিও অনেকজনকে কুরআন শিক্ষা দিয়েছি,আলহামদুলিল্লাহ। ওনার ঋণ কখনো শোধ হওয়ার নয়। আল্লাহ যেখানেই রাখুন সুস্থ রাখুন,হায়াতে তাইয়্যেবা দান করুন।

নূরানী বিভাগ শেষ হওয়ার পর আমি মিরসরাইয়ের ঐতিহ্যবাহী শতবর্ষী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান “মিঠাছরা ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসায়।” উক্ত প্রতিষ্ঠানে একজন শিক্ষক খুব বেশি আন্তরিকতার সহিত পাঠদান করেন। উক্ত মাদ্রাসার আরবী প্রভাষক জনাব আব্দুর রহমান হুজুর। বন্ধুত্বপূর্ণ আচরন এবং সহিষ্ণুতার সাথে এত সুন্দর করে সব বিষয় বুঝিয়ে দিতেন, ওনার থেকে শিক্ষা নেওয়া আরবী কায়দা,গণিতের নিয়ম এখনো পর্যন্ত স্মৃতিতে সংরক্ষিত। উল্লেখ্য, তিনি আরবী বিষয়ের শিক্ষক হলেও খুব ভালো গণিত বুঝাতেন। ওনার কথা ভুলার মতো নয়, এখনো তিনি উক্ত মাদ্রাসায় চাকরীরত আছেন। আমি সর্বদা ওনার নেক হায়াত কামনা করি।

বর্তমানে আমি চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী শতবর্ষী মাদ্রাসা “সুফিয়া নূরীয়া ফাজিল (স্নাতক) মাদ্রাসায়” অধ্যয়নরত আছি। উক্ত মাদ্রাসার সম্মানিত উপাধ্যক্ষ জনাব মাওলানা আব্দুল হক সিরাজী সাহেব হুজুর থেকে পুঁথিগত বিদ্যা থেকেও ওনার ব্যবহারিক চালচলন থেকে যা কিছু অর্জন করেছি তা অন্য কেউ শিক্ষা দিবে বলেও আমি মনে করিনা।

পরিশেষে আমি আল্লাহর কাছে এটুকুই প্রার্থনা করি, পৃথিবীর সকল শিক্ষককে হায়াতে তাইয়্যেবা দান করুন,এবং যারা পরপারে পাড়ি জমিয়েছেন তাদেরকে জান্নাতুল ফিরদাউস নসীব করুন। আমীন।

ছামির আলী ভূঁইয়া,
শিক্ষার্থী, সুফিয়া নূরীয়া ফাজিল মাদ্রাসা,
মিরসরাই,চট্টগ্রাম।