রিফাত হত্যা: পালাতক ৮ আসামির মালামাল জব্দের নির্দেশ দিয়েছে আদালত

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৯:০৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৩, ২০১৯

মো.মিজানুর রহমান নাদিম,বরগুনা প্রতিনিধি :

রিফাত হত্যা মামলায় পলাতক আট আসামির নিজস্ব মালিকানাধীন মালামাল জব্দের আদেশ দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে মামলায় প্রধান অভিযুক্ত রিফাত ফরাজীসহ দুই জনের জামিন আবেদন করা হলে বিচারক তা নামঞ্জুর করেন। বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) বেলা ১১টায় চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সিরাজুল ইসলাম গাজী এই আদেশ দেন। এসময় মামলার পরবর্তী তারিখ ১৬ অক্টোবর নির্ধারণ করেন তিনি।

বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মজিবুল হক কিসলু জানান, ‘মামলার ধার্য তারিখ থাকায় কারাগারে থাকা সাত আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়েছিল। এসময় জামিনে থাকা আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি ও আরিয়ান শ্রাবণও আদালতে হাজির হন। এসময় প্রধান অভিযুক্ত রিফাত ফরাজী ও টিকটক হৃদয়ের জামিন আবেদন করা হলে শুনানি শেষে জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন আদালত। পরে রিফাত হত্যা মামলায় চার্জশিটভুক্ত পলাতক আসামি সিফাত, মুসা বন্ড, রিফাত হাওলাদার, রায়হান, নাঈম, রাকিবুল হাসান নিয়ামত, সাঈদ মারুফ বিল্লাহ ও প্রিন্স মোল্লার মাল ক্রোকের আদেশ দেন আদালত।’

গত ১ সেপ্টেম্বর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় রিফাতের স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দেয় পুলিশ। একই সঙ্গে রিফাত হত্যা মামলার এক নম্বর আসামি নয়ন বন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। এই মামলায় এখন পর্যন্ত ১৫ জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ছয় কিশোরকে শিশু-কিশোর সংশোধনাগারে পাঠানো হয়। এছাড়া আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিসহ জামিনে রয়েছেন দুই জন।

প্রসঙ্গত, গত ২৬ জুন সকাল সোয়া ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে রিফাত শরীফকে। গুরুতর আহত রিফাতকে ওইদিন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখ ও পাঁচ-ছয় জনকে অজ্ঞাত আসামি করে বরগুনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।