যে নেতা খুনিদের সাথে আতাত করে চলে তাকে বয়কট করতে হবে: আবু তাহের

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৮:৫৫ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২০

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

ধৈর্য্য ধরুন, মন্ত্রীর প্রচেষ্টায় মামুন হত্যায় জড়িত ৫জন আসামী গ্রেফতার হয়েছে। বাকী ২ দুজন বিদেশে পলাতক রয়েছে। তাদের আইনের মাধ্যমে কিভাবে দেশে আনা যায় সে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবো। আমি কথা দিচ্ছি, কর্ণফুলী আওয়ামীলীগ মামুন হত্যার খুনিদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেবে না।

গত শনিবার বিকালে বীর মুক্তিযোদ্ধা আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু চত্বরে কর্ণফুলী উপজেলা ছাত্রলীগ আয়োজিত ছাত্রনেতা মামুনুর রশিদ সাগরের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকীতে স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হায়দার আলী রনি এসব কথা বলেন।

প্রধান বক্তা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আবু তাহের বলেন, যে নেতা খুনিদের সাথে আতাত করে চলে তাকে বয়কট করতে হবে। ছাত্রলীগের কর্মীরা যেমন নেতা বানাতে পারে চাইলে নামাতেও পারে।’

সভায় অন্যান্য বক্তারা বলেন, শহীদ ছাত্রলীগ নেতা মামুনুর রশিদ সাগরের হত্যাকারীদের যারা প্রশ্রয়দাতা তাদেরকে চিহ্নিত করে বয়কট করার ও মামুনুর রশিদ সাগর হত্যা মামলার রায় দ্রুত কার্যকর করে দোষীদেরকে সর্বোচ্চ শাস্তি প্রদানের জন্য উদাত্ত আহ্বান জানান।

উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মো. সাজ্জাদ হোসেন সাজিদের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহবায়ক সাইফুদ্দিন ও সাঈদ হোসেন রিমনের যৌথ সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত স্মরণসভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা এম. এন ইসলাম, জেলা যুবলীগের সভাপতি আ.ম.ম টিপু সুলতান চৌধুরী, জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক ইন্জিনিয়ার ইসলাম আহমেদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান দিদারুল ইসলাম চৌধুরী, শিকলবাহা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, জুলধা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আমির আহমদ, বড়উঠান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান দিদারুল আলম, জুলধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রফিক, চরলক্ষ্যা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিক আহমদ, চরপাথরঘাটা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ কামাল আহমদ রাজা, বড়উঠান ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান খান, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি সোলায়মান তালুকদার, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোমেনা আকতার, উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আমজাদ হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সাইদুল ইসলাম টুটুল, সোহেল আজাদ, ইফতেখার রনি, গিয়াস উদ্দিন, কামাল উদ্দিন, আব্দুল্লাহ আল নোমান, কফিল উদ্দিন প্রমুখ।

উপস্থিত ছিলেন কর্ণফুলী উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, শ্রমিক লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।

২০১৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর এ ছাত্রলীগ নেতা মামুনুর রশিদ মামুনকে তার বাড়ির পাশে কুপিয়ে হত্যা করে দুষ্কৃতকারীরা।