যবিপ্রবি কর্মকর্তা সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৫:১৩ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২০

নিলয় ধর,স্টাফ রিপোর্টার(যশোর):-

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) সেকশন অফিসার ও কর্মকর্তা সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ টি এম কামরুল হাসানের বিরুদ্ধে যশোর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কার্যালয়ের সিনিয়র নিরাপত্তা প্রহরী বদিউজ্জামান বাদল।বিচারক গৌতম মল্লিক অভিযোগের তদন্ত করে,পিবিআইকে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার আদেশ দিয়েছে।

মামলার নালিশের বিবরণীতে বাদী বদিউজ্জামান বাদল জানিয়েছেন গত (১৯ জুলাই) রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা পদের আপগ্রেডেশনের জন্য রেজিস্ট্রারের নিকট আবেদনপত্র জমা দেন তিনি। এরই পরিপ্রেক্ষিতে (২০ জুলাই) সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কর্মকর্তা ও কর্মচারী সমিতির কার্যনির্বাহী সদস্যদের নিয়ে প্রশাসনিক ভবনের সম্মেলন কক্ষে আলোচনায় বসেন। আবেদনকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা আলোচনার ফলাফল সেকশন অফিসার ও কর্মকর্তা সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ টি এম কামরুল হাসানের নিকট জানতে চাইলে তিনি

উত্তেজিত হয়ে উপস্থিত সবাইকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং বাদলকে উপর্যুপরি কিলঘুষি মেরে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন তিনি এবং গলা চেপে ধরেছেন। বাদলের পকেটে থাকা অসুস্থ গাড়িচালক জাহাঙ্গীর হোসেনের চিকিৎসার জন্য রক্ষিত ১০ হাজার ৫০০ টাকা ঘটনাস্থলে পড়ে গেলেও পরে আর পাননি বলেও অভিযোগ করেছেন। এই সময় কর্মকর্তা কামরুল হাসান তাকে খুন জখমের হুমকি দিয়েছে, বলেও অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে।

এর আগে, সেকশন অফিসার ও কর্মকর্তা সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ টি এম কামরুল হাসানের কক্ষ ভাঙচুর এবং তাকে লাঞ্ছিতের অভিযোগে গত (২১ জুলাই) মঙ্গলবার তিনি ছয় কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এই সময় নিরাপত্তাপ্রহরী বদিউজ্জামান বাদলকে সাময়িক

বরখাস্ত করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ওই ঘটনায় ৩ সদস্যবিশিষ্ট ১টি তদন্ত কমিটিও গঠন করা হয়েছে।
তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. ইকবাল কবির জাহিদ,সদস্য ও কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি প্রধান প্রকৌশলী হেলাল উদ্দিন পাটোয়ারী এবং সদস্য-সচিব ও কর্মচারী সমিতির সভাপতি এস এম সাজেদুর রহমান জুয়েল। কমিটিকে আগামী (৫ আগষ্ট)এর মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বরাবর জমা দিতে বলা হয়েছে।