মিয়ানমার থেকে একদিনে এসেছে১১৯২মেট্রিকটন পেঁয়াজ

নিউজ নিউজ

ভিশন ৭১

প্রকাশিত: ১২:১৩ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৪, ২০২০

ফরহাদ আমিন:
মিয়ানমার থেকে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ আমদানি অব্যাহত রেখেছেন।সোমবার একদিনে ৯জন ব্যবসায়ীর কাছে১৮টি ট্রলারে করে১হাজার১৯২ দশমিক৬৭৯মেট্রিকটন পেঁয়াজ টেকনাফ স্থলবন্দরে এসেছে।চলতি জানুয়ারি মাসে ১১দফায় মিয়ানমার থেকে নৌপথে ৪হাজার৭২১দশমিক৮৮৯মেট্রিকটন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়েছে।বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ স্থলবন্দরের কাস্টমস সুপার আফসার উদ্দিন।তিনি বলেন,গত বছরের২৯সেপ্টেম্বর থেকে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দেয় ভারত।এরপর ৩০সেপ্টেম্বর মিয়ানমার থেকে প্রথম চালানে ৬৫০টন পেঁয়াজ আসে।এরপর থেকে সোমবার বিকেল পর্যন্ত মিয়ানমার থেকে ৬৫হাজার৪২৯দশমিক৯১৬টন পেঁয়াজ আমদানি করা হয়।সকালে ব্যবসায়ী যদুবাবুর১৩৪দশমিক৩২৭;মোঃছৈয়দকরিমের২৫৬দশমিক৬৩২;কামরুলের১৪২দশমিক৫৭০;বাহদুরের৭০দশমিক৬৩৬;আব্দুলজব্বারের৮৫দশমিক৪২৭;শওকতের২২৮দশমিক৮৬০;মোহাম্মদ সজিবের২১৩দশমিক৮৫৫; মোঃ নাছিরের১৭দশমিক৬০১;নুরমোহাম্মদের৪২দশমিক৭৭১মেট্রিকটন পেঁয়াজ স্থলবন্দর আসে।তবে এখনও পাচঁ শতাধিক মেট্রিকটন পেঁয়াজ খালাসের অপেক্ষায় ট্রলারগুলো নদীতে নোঙর করে আছে।তিনি আরো বলেন,মিয়ানমার থেকে আরও কয়েকশ’মেট্রিকটন পেঁয়াজ ভর্তি একাধিক ট্রলার স্থলবন্দর পথে রওনা দিয়েছে।তবে দেশের স্বার্থে সংকট মোকাবিলায় পেঁয়াজ আমদানি বাড়াতে আরও বেশি উৎসাহিত করা হচ্ছে।
এ প্রসঙ্গে স্থলবন্দর পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠানের ইউনাইটেড ল্যান্ড পোর্ট টেকনাফ লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক জসিম উদ্দিন বলেন,মিয়ানমার থেকে বেশি পরিমাণে পেঁয়াজ আমদানি করছেন ব্যবসায়ীরা।সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে৭টা পর্যন্ত৯১টি পেঁয়াজ ভর্তি ট্রাক দেশের বিভিন্ন বিভাগীয় শহরের উদ্দেশ্যে স্থলবন্দর ছেড়ে গেছে।