মানবতা-মো. সাইফুল ইসলাম

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১০:৩৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩১, ২০২০

—————-
ছোট খুকী বসে আছে
আশায় বুক বেধে,
বাবা এনে দিবে মাংস
মা দিবে তাকে রেঁধে।

Advertisement

খুশিতে ছোট খুকীর
আনন্দ না ধরে,
আনন্দের ঝলকানি যেন
ছড়িয়ে পরছে সারা ঘরে।

মা কখন পেঁয়াজ মরিচ কেটে
বসে আছে রান্নার আশায়,
বাবা কেন এখনো আসেনি
মাংস নিয়ে বাসায়।

খুকি তো জানতো না বাবার কাছে
মাংস কেনার মত নেই পয়সা,
তার আবদার শুনে বাবা হাসি মুখে
চলে গেছে বুকে বেঁধে নিয়ে আশা।

কিন্ত কে জানতো ধনী লোকের
হৃদয় এতটা ভার,
সারাদিন ঘুরে ফিরেও করতে
পারেনি মাংস যোগার।

ধনী লোকের বিরাট কারবার
মনটা কেন এত নিচ,
কোরবানি দেওয়ার নাম করে
মাংসে ভরে ফ্রিজ।

কান্না ভেজা চোখ নিয়ে বাবা
ফিরল খালি হাতে,
তা দেখে খুকীর মন
ছেয়ে গেল আঁধার রাতে।

বাবা তখন জড়িয়ে ধরে বলে
আহারে মোর খুকী,
আমাদের মত এই জগতে
নেই কেউ আর দুঃখী।

হঠাৎ করে ডাক পাড়ে ও ভাই
বাড়িতে আছো নাকি?
আমি তোমাদের সব্জি ওয়ালা
দরজাটা একটু খোলো দেখি।

হাতে করে মাংসের পোটলা
নিয়ে দিল খুকীর হাতে,
খাবে খুকি রান্না করে
বাবা মায়ের সাথে।

বাবার চোখ জুড়ে এল
আনন্দের অশ্রুজল,
ধনীদের চেয়ে গরীবের
মন নিতান্তই দূর্বল।

রাতে হঠাৎ উঠল ঝর
বিদ্যুৎএর তার সব ছিঁড়ে,
হুমড়ি খেয়ে পরে আছে
গাছের সাথে রাস্তার ধারে।

সে-কি কান্ড! ধনীর ফ্রিজের
মাংস যে-সব গেল পঁচে,
গরীবকে ঠকিয়ে মাংস
খাওয়ার স্বাধ যে গেল ঘুচে।

এমন হাজারো মানুষ আছে
সবার আশেপাশে,
তাদের করুন সাহায্য
মনের গভীর থেকে ভালোবেসে।

ভালো কাজের দ্বারা চিরদিন
মানব হৃদয়ে হয়ে থাকে গাঁথা,
এটাই ভালো আর উৎকৃষ্ট কাজ
আর এটাই হচ্ছে মানবতা।