বিজয়ের দিনে নতুনের পথে।

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১২:১৭ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২, ২০১৯

বরিশাল অফিস :

বিজয়ের মাসের প্রথম দিন ছিল রোববার। এই দিনটি হবে মুক্তিযোদ্ধা দিবস। এমনই প্রত্যাশা মুক্তিযোদ্ধা সংগঠনগুলো ও মুক্তিযোদ্ধাদের। এই দাবী নিয়ে রোববার বরিশাল নগরীর ৩০ গোডাউনের বদ্ধভূমিতে আয়োজন করা হয় মুক্তিযুদ্ধের ঘটনা বলা অনুষ্ঠান ও বদ্ধভূমিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ।

বরিশালের সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন দি আডেশাস্ এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে ১৯৭১ সালে বরিশালে ঘটে যাওয়া ৩টি সফল অভিযানের কাহিনী বণর্না করেন বরিশাল মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডাস্ কেএস মহিউদ্দিন মানিক বীর প্রতীক, মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম নান্নু ও কাজী জাহাঙ্গির হোসেন।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ গণশিল্পী সংস্থার বরিশাল জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক সাঈদ পান্থ ও বাংলাদেশ খ্রিষ্ট্রান এসোসিয়েশন বরিশালের সাধারণ সম্পাদক আলবার্ট রিপন।

দি অডেশাস্ সভাপতি মো: রুম্মানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সানজিদা বৃষ্টি। অনিরুদ্ধ খাশকেল হিমাদ্রীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা দুর্জয় সিংহ জয়।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশের সুদীর্ঘ রাজনৈতিক ইতিহাসে শ্রেষ্ঠতম ঘটনা হলো ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধ। সশস্ত্র স্বাধীনতা সংগ্রামের এক ঐতিহাসিক ঘটনার মধ্য দিয়ে বাঙ্গালি জাতির কয়েক হাজার বছরের সামাজিক রাজনৈতিক স্বপ্ন সাধ পূরণ হয় এ মাসে।

বাঙালি জাতির সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন মুক্তিযুদ্ধের অবিস্মরণীয় গৌরবদীপ্ত চুড়ান্ত বিজয় এ মাসের ১৬ ডিসেম্বর অর্জিত হয়। স্বাধীন জাতি হিসেবে সমগ্র বিশ্বে আত্মপরিচয় লাভ করে বাঙালিরা।

অর্জণ করে নিজস্ব ভূ-খন্ড আর সবুজের বুকে লাল সূর্য খচিত নিজস্ব জাতীয় পতাকা। ভাষার ভিত্তিতে যে জাতীয়তাবাদ গড়ে উঠেছিল, এক রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মাধ্যমে ঘোষিত স্বাধীনতা পূর্ণতা পায় এ দিনে।