ঢাকা২১শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চান লোহাগাড়ার ইটভাটা মালিক ও কর্মচারীরা

প্রতিবেদক
নিউজ ভিশন

মার্চ ২, ২০২১ ৬:২৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!


সাত্তার সিকদার , নিজস্ব প্রতিনিধি, চট্টগ্রাম:

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলা ইট প্রস্তুতকারী মালিক, কর্মকর্তা-কর্মচারী, শ্রমিকসহ এই শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্টদেরকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে মানববন্ধন করেছে লোহাগাড়া ইটভাটা মালিক ও কর্মচারীরা।

মঙ্গলবার (২ মার্চ) সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদ এলাকার চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

এতে এ শিল্পের সাথে জড়িত প্রায় ৫ শতাধিক লোকজন অংশগ্রহণ করেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আহসান হাবিব জিতুর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

লোহাগাড়া উপজেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. ছরওয়ারের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন, সমিতির সাবেক সভাপতি শাহাব উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা টিকাদার সমিতির সভাপতি নুরুল আলম জিকু, ইটভাটা মালিক সমিতির সহ-সভাপতি নুরুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক খোরশেদ আলম, অর্থ সম্পাদক মো. পারভেজ, প্রচার সম্পাদক আব্দুল জব্বার, ব্যবসায়ী নুরুল আলম বাহাদুর, জাহাঙ্গীর আলম, মো. জসিম উদ্দিন, মো. দেরাছ, মো. গিয়াস উদ্দিন, বশির আহমদ, মাষ্টার সৈয়দ আহমদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সম্প্রতি মহামান্য হাইকোর্টের এক আদেশে পরিবেশ অধিদপ্তরের অভিযানে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে চট্টগ্রামের ১০২টি ইটভাটা।
এই গুঁড়িয়ে দেওয়া ইটভাটার সাথে নিভে যেতে বসেছে কয়েকলক্ষ পরিবার। ইটভাটা একটি মৌসুমি ব্যবসা।
মাঝপথে এটি বন্ধ করা হলে ইটভাটার সাথে জড়িত সবাইকে নাখেয়ে মরে যেতে হবে। দেশে সরকারের চলমান উন্নয়নে বড় ধরনের ভূমিকা রেখেছে এই ইটভাটা গুলো। পরিবেশ অধিদপ্তর কর্তৃক গুঁড়িয়ে দেওয়ার পর লোহাগাড়ায় ৩৫টি ইটভাটা রয়েছে। যার মধ্যে অর্থ উপার্জনে পরিবারের সদস্যদের মুখে দু’মুঠো আহার তুলে দিচ্ছে হাজারো শ্রমিক।

মানববন্ধনে বক্তারা আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে দেশের মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নে এই শিল্পের গুরুত্ব অপরিসীম। হঠাৎ করে এই শিল্প বন্ধ হয়ে গেলে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত ও ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়বে মালিক-শ্রমিক পরিবার। তাই শিল্পকে বাঁচাতে মানবতার জননী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন লোহাগাড়া ইটভাটা মালিক, শ্রমিকসহ এই শিল্পের সাথে জড়িত সংশ্লিষ্টরা। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করেন বলেন, অন্তত লোহাগাড়া উপজেলার ইটভাটা গুলো গুড়িয়ে নাদিয়ে দুই মাস সময় দিন। দুই মাস পর আমরা নিজেরাই বন্ধ করে দিব ইটভাটা গুলো।

সম্পর্কিত পোস্ট