পেকুয়ায় ঈদুল আযহা ও মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে মাংস বিতরণ

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৪:৫৭ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ৩, ২০২০

হুমায়ুন কবির :

পেকুয়ায় ঈদুল আযহা ও বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী পালন উপলক্ষে এক দাতব্য সংস্থার সহযোগীতায় অসহায় ও হত-দরিদ্র পরিবারের মাঝে মাংস বিতরণ করেন সাংবাদিক জালাল উদ্দীন ।

২রা আগষ্ট (রবিবার) সকাল সাড়ে ৯টায় পেকুয়া উপজেলার উজানটিয়ার পেকুয়ার চরে সাংবাদিক জালাল উদ্দিনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে প্রায় ২শ হত-দরিদ্র পরিবারের মাঝে এ মাংস বিতরণ করা হয়।

মাংস সংগ্রহ করতে আসা অসহায় ফরিদা বেগম,কুলছুমা বেগম,রাশেদা বেগম,মেহেরাজ খাতুন ও আজু ফকিরা নিউজ ভিশনকে বলেনঃ
দেশে চলমান মরণব্যাধী করোনা ভাইরাসের কারণে এলাকায় অনেকেই কোরবানি করতে পারেনি এবং আমরা বহু পরিবারের অসচ্চলতার কারণে সন্তানদের মুখে মাংস তুলে দিতে পারিনা। এমন সময়ে সাংবাদিক জালাল উদ্দিন প্রতি বছর ঈদুল আযহার ২য় দিনে আমাদের হাতে গরুর মাংস তুলে দিয়ে সে অভাবটা মিটিয়ে দেন।
তার এ বদন্যতার জন্য মহান আল্লাহর কাছে দীর্ঘায়ু ও সুখ সমৃদ্ধি কামনা করি এবং তার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

মাংস বিতরণকারী সাংবাদিক জালাল উদ্দিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি নিউজ ভিশন ৭১ কে বলেনঃ
ছোট বেলা থেকে অনেক অভাব অনটনের মধ্যে বড় হয়েছি।প্রতিবারে কোরবান আসলে অসহায় পরিবারগুলোর চেহারা দেখা যায় মলিন।লেখাপড়া করার সময় মনে মনে ভাবতাম আল্লায় যদি আমাকে তওফিক দেয় তাহলে এদিনে অসহায় পরিবারগুলোর মাঝে কিছুটা হলেও মাংস তুলে দেব।

এ বাসনায় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক দাতব্য সংস্থার সার্বিক সহযোগীতায় প্রায় দু-শত পরিবারের মাঝে এ মাংস বিতরণ করেছি।বিশেষ করে এ বছর বাংলাদেশের স্থপতি ও স্বাধীনতার মহানায়ক জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী পালন উপলক্ষে অসহায় পরিবারের মাঝে মুজিব চেতনা বাড়ানোর তাগিদে প্রায় ২শ পরিবারকে এ সহায়তা দেয়া হয়েছে।
আমার এ মাংস বিতরণে সহযোগীতা করার জন্য দাতব্য সংস্থাকে অশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।
আমাকে নিরলসভাবে সহায়তা দিয়ে গেছেন উপজেলা তাঁতীলীগের সহ-সভাপতি কাইয়ুম রেজা,তরুণ সমাজসেবক সেকান্দর আলী,বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের পেকুয়া উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক হারুণ সোলতান ও পেকুয়া উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন বিল্লালসহ আওয়ামীলীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।আমি তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি।আশাকরি আগামীতেও আমার এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।