পুলেরঘাট উপশহর হবে বানিজ্যিক অঞ্চল

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৬:৫৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৮, ২০২০

—————————
সম্প্রতি কিশোরগঞ্জকে ইকোনমিক জোন হিসেবে ঘোষনা করেছে বাংলাদেশ সরকার। সারা দেশে ঘোষিত ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চলের মধ্যে কিশোরগঞ্জ ইকোনমিক জোন অন্যতম। অবশেষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে চূড়ান্ত লাইসেন্স পেয়ে ইকোনমিক জোনটির স্থাপনার কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। ইকোনোমিক জোনটি কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার পুলেরঘাট উপশহরের(মাইজহাটি) ভৈরব-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের দুই পাশে ৯১ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত হবে।এটি নিটল-নিলয় গ্রুপের উদ্যোগে সরকারি লাইসেন্সপ্রাপ্ত একটি বেসরকারি কোম্পানি হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

এই ইকোনোমিক জোনে ভারতের গাড়ি নির্মান প্রতিষ্ঠান টাটা মোটরস লিমিটেড নিটল-নিলয় গ্রুপের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে টাটা ব্র্যান্ডের গাড়ি তৈরি উদ্যোগ গ্রহন করেছে। আবার ভারতের আরো একটি স্টিল প্রস্তুতকারী কোম্পানি বিনিয়োগের লক্ষে প্রকল্প বাস্তবায়নে কাজ শুরু করেছে।তাছাড়াও বিশ্বের উন্নত দেশগুলো বানিজ্যিকভাবে বিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে। চীন ও জাপানের মতো উন্নত বিশ্বের দেশগুলোও যৌথভাবে বাংলাদেশের সাথে বানিজ্যিকভাবে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রদর্শন করেছে ইকোনমিক জোনটিতে। এই ইকোনমিক জোনের ভিতরে নতুন গাড়ি তৈরি, গাড়ির যন্ত্রাংশ তৈরি, স্টিল ও সিরামিকের বিভিন্ন পণ্য উৎপাদনের কোম্পানি নির্মান করা হবে। তাছাড়াও অফিসার, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শ্রমিকদের উন্নত জীবন মান নিশ্চিত করনের লক্ষে ইকোনমিক জোনটির ভিতরে স্কুল, কলেজ, হাসপাতাল ও ব্যাংকসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে। জোনটি সম্পূর্ণভাবে বানিজ্যিক উৎপাদন শুরু করলে ৫ হাজার লোকের প্রত্যক্ষ ও ২০ হাজার লোকের পরোক্ষক কর্মসংস্থান হবে।
যাতায়াত ব্যবস্থার সুবিধার কারনে কিশোরগঞ্জ জেলার বানিজ্যিক প্রানকেন্দ্র হিসেবে পরিচিত পুলেরঘাট উপশহরের পরিত্যক্ত কালিয়াচাপড়া চিনিকল এড়িয়াকে বাংলাদেশ সরকার অর্থনৈতিক অঞ্চল হিসেবে ঘোষনা করেছেন। ইতোমধ্যে ইকোনমিক জোনটির স্থাপনার কাজ শুরু হয়ে গেছে। ফলে হাওরের- বাওরের ভূমি নামে খ্যাত কিশোরগঞ্জ জেলার মানুষের মনে আশার সঞ্চার হয়েছে। বেকারদের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। যোগ্যতার ভিত্তিতে অফিসার, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শ্রমিক নিয়োগ দেওয়া হবে। ফলে বেকারত্ব কমবে ও মানুষের জীবন মানের উন্নয়ন হবে। এই অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হলে পুলেরঘাট অঞ্চল হবে একটি আধুনিক শহর। আর এই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে ইকোনোমিক জোনের প্রতিটি কাজে এলাকাবাসীর পূর্ন সমর্থন ও সহযোগিতা রয়েছে।

মো:আল আমিন হোসেন
পুলেরঘাট, কিশোরগঞ্জ