পিরোজপুরের দাউখালিতে পল্লী বিদ্যুতের যত অনিয়ম

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১১:০৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৬, ২০২০

———
পল্লী বিদ্যুতের কার্যক্রম নানা অনিয়ম এবং অসচেতনতায় ঝরঝরিত।কোথাও কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কা করা হয়না। জনসেবারর নামে চলে জনভোগান্তি। বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়ার জন্য দিতে হয় মোটা অংকের টাকা। শুধু তাই না, অধিকাংশ সময় ব্যবহৃ ইউনিট এবং বিলের সাথে কোন সামঞ্জস্য খুজে পাওয়া যায়না। তাছাড়া বিদ্যুৎ লাইনের নিয়মিত চেকিং এবং আকস্মিক দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য নেই প্রয়োজনীয় সচেতনতা। তাদের এই অসচেতনতার দ্বারা পিরোজপুর জেলার দাউখালি ইউনিয়নের দেবত্র ২ নং ওয়ার্ডের দুটি বাড়িতে তারা মৃত্যুর ফাদ বানিয়ে রেখেছে। বিদ্যুৎ লাইন দেয়ার জন্য তারা প্রায় এক বছর আগেই অন্য বাড়িগুলোর মতোই ঐ দুই বাড়িতেও তার টেনে রেখেছিল।
কিন্তু এই এতোদিন লাইনে বিদ্যুৎ সংযোগ ছিলনা। কিছু দিন আগে লাইনে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে কিন্তু ঐ দুই বাড়ির মিটার তখনও আসেনি। তাই তারা নতুন লাইন থেকে বিদ্যুৎসংযোগ নিতে পারেনি। কিন্তু তাদের ঘরে যে তার রেখে দেওয়া হয়েছিল তাতে বৈদ্যুতিক মিটার না লাগিয়েই ঝুলন্ত তারে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে যেখানে তারের মাথা সম্পূর্ণ খোলা এবং অরক্ষিত। এবং বৈদ্যুতিক তারে এই বিদ্যুৎ সংযোগের বিষয়টি সম্পর্কে বাড়ির মালিকগন সম্পূর্ণ অজ্ঞাত ছিল। এমতাবস্থায় ঐ বাড়ির একটি মেয়ে অজ্ঞাতসারে বৈদ্যুতিক তার স্পর্শ করলে শক সার্কিট হয় এবং মেয়েটি আহত হয়।
বিদ্যুৎ সংযোগের কাজে নিয়োজিত কর্তৃপক্ষের এধরণের অসচেতনতা যেকোনো সময় বড় কোন দুর্ঘটনা বয়ে আনতে পারে যা মোটেও কাম্য নয়।
তাই অনতি বিলম্বে বিদ্যুৎ লাইনের সকল সমাস্যা সমাধান করে ঝুকি মোকাবেলায় সচেতন হতে হবে।
————
সুমাইয়া আক্তার তহুরা
শিক্ষার্থী,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।
ও সদস্য, বাংলাদেশ তরুণ কলাম লেখক ফোরাম।