পঞ্চগড়ে শ্লীনতাহানীর অভিযোগে আটক আইনজীবীর শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৮:৫৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

পঞ্চগড় প্রতিনিধি :

পঞ্চগড় জেলার আটোয়ারী উপজেলার ধামর ইউনিয়ন এর হিরালাল রায় এর কন্যা দশম শ্রেণির ছাত্রী গোলাপি রানিকে ধর্ষণের দায়ে আইনজীবী হাবিবুর রহমানের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে পঞ্চগড় জেলা শহীদ মিনার প্রসঙ্গে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ পঞ্চগড় জেলা শাখা ও পঞ্চগড় জেলা বাসীর উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে বক্তারা ধর্ষণের দায়ে ওই আইনজীবীর বিচার ও ফাঁসির দাবি জানান।

তারা বলেন, অতি দ্রুত ওই আইনজীবীর বিচার করে ফাঁসি দেয়া হোক।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ এর সভাপতি, সেক্রেটারির, পঞ্চগড় স্থানীয় পূজা উদযাপন পরিষদ কমিটির নেতৃবৃন্দ সহ আটোয়ারী উপজেলার বিভিন্ন এলাকা সাধারণ মানুষ।

এসময় বক্তারা বলেন, ওই ছাত্রীর বাবার সাথে আর্থিক লেনদেনের সুবাদে তাদের বাড়িতে নিয়মিত যাতায়াত করতেন অভিযুক্ত আইনজীবী। গত শুক্রবার দুপুরে আইনজীবী হাবিবুর রহমান কৌশলে ওই স্কুলছাত্রীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করেন। পরে ওই স্কুলছাত্রীর চিৎকারে স্থানীয়রা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে এবং আইনজীবীকে আটক করে পুলিশকে খবর দেয়।

গোলাপি রানির পিতা হিরালাল বলেন,”গত ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে পঞ্চগড় বার এসোসিয়েশন এর সদস্য এ্যাডভেকেট হাবিব সহ তার দুই জন সহকারী মিলে আমার মেয়ে গোলাপি রানিকে জোর পূর্বক ধর্ষন করেন। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সঠিক বিচার চাচ্ছি এবং কোনো প্রভাবশালী মহলের প্রবাবে যেন মেডিকেল রিপোর্ট পরিবর্তন না হয় তার জোর দাবি জানিয়েছেন।”

এ্যাডভোকেট হাবিব কে পঞ্চগড় জেলা বার এসোসিয়েশন থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে এবং জেলা বার এসোসিয়েশন এর পক্ষ থেকে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

গোলাপি রানির পরিবারের সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা চেয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাছ থেকে। উল্লেখ্য গত শুক্রবার রাতে ওই শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে থানায় ধর্ষণের মামলা দায়ের করেন।