পঞ্চগড়ে এলজি এম্বাসেডর প্রোগ্রামে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে পশু বিতরন

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১:০৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৯, ২০২০

আবু তৌহিদ,পঞ্চগড়ঃ

গত ১৮ জুলাই ২০২০ পঞ্চগড় জেলায় বাস্তবায়িত হল এলজি এম্বাসেডর প্রোগ্রাম ২০২০ এর আওতায় করোনার কারনে ক্ষতিগ্রস্থ ১৩৫ টি পরিবারের মাঝে গৃহপালিত পশু বিতরণ করা হয়েছে ।

এলজি ইলেক্ট্রনিক্স বাংলাদেশ এর নিয়মিত আয়োজন এলজি এম্বাসেডর প্রোগ্রাম, যার মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সামাজিক উন্নয়নমূলক কাজে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। এরই ধাবাহিকতায় আজ পঞ্চগড়ে এই প্রোগ্রামটি বাস্তবায়িত হল। এর মাধ্যমে পঞ্চগড়ের বোদা ও আটোরিয়া উপজেলার স্থায়ীভাবে বসবাসরত অসহায় ও সুবিধাবঞ্ছিত ১৩৫টি পরিবারের প্রতি পরিবারকে ১টি করে ছাগল লালন পালনের উদ্দেশ্যে প্রদান করা হয়। যার ফলে পরিবারগুলো জীবিকা নির্বাহ ও জীবন যাত্রার মান উন্নয়ন করতে পারবেন।

এই প্রোগ্রামের রুপকার যিনি, তিনি হলেন পঞ্চগড় জেলার আটোয়ারী উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের কালমেঘ গ্রামের ছেলে জনাব মোহাম্মদ আবদুল্লাহ রনি। সর্বপ্রথম তিনিই স্বপ্ন দেখেছিলেন এই পরিবারগুলোর মুখে হাসি ফোটানোর। যার ফলে তিনি আবেদন করেছিলেন এলজি এম্বাসেডর প্রোগ্রাম ২০২০ এ। এলজি তার এই সুন্দর স্বপ্নকে সাধুবাদ জানিয়ে তা বাস্তবায়নের জন্য সার্বিক সহায়তা করে। আর অবশেষে আজ তার চূড়ান্ত রুপ দেন জনাব রনি ও তার সহকর্মীবৃন্দ।
রনি বলেন,আশা করি ১ টা মানুষ হলেও আমার জন্য দোয়া করবে কারন অনেক চেস্টা করছি মানুষ গুলো কে একটু হলেও সাহায্য করার জন্য। আমি তাতেই সন্তুষ্ট। এই বয়সে নিজের জেলার জন্য কিছু করা টা কম ই বা কিসের। পিছে লোকে অনেক কিছুই বলবে। সবাই অনেক চেস্টা করছে। ধন্যবাদ সবাইকে। তবে এভাবে আর হয়তো আমি থাকবো না
এলজি অ্যাম্বাসেডর প্রোগ্রাম রয়েছে এমন আরো অ্যাম্বেসেডরদের অপেক্ষায়, যাদের সুন্দর চিন্তায় বাস্তবায়িত হবে কিছু মানুষের স্বপ্ন।
উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এলজি ইলেক্ট্রনিক্স বাংলাদেশ ব্রাঞ্চ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মিঃ ডি কে সন সহ এলজি ইলেক্ট্রনিক্স এর উল্লেখযোগ্য কর্মকর্তাগণ। তারা বলেন, এভাবেই আরো কিছু মানুষের স্বপ্ন পূরণে এলজি অ্যাম্বাসেডর প্রোগ্রাম এগিয়ে আসবে বলে জানান তারা।