ধর্ষণ ঠেকাতে কঠোর আইন প্রণয়ন ও তা বাস্তবায়নের জন্য শাসন বিভাগের বিশেষ নজরদারির দাবি

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ২:০৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

————————————-
আমরা কোথায় বাস করছি? সকালে ঘুম থেকে উঠে খবরের কাগজ খুললেই ধর্ষনের চিৎকারে হাহাকার করতে থাকে সংবাদমাধ্যমগুলা। ইতোমধ্যেই ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর এর নামে ধর্ষনের মামলা উঠেছে, সেই ধাক্কা যেতে না যেতেই গত ২৫ সেপ্টেম্বর শুক্রবার রাত ৯.০০টার দিকে সিলেটের এম সি কলেজে (ঘুরতে যাওয়া এক দম্পতি) স্বামীকে মারধর করে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ করেছে ছাত্রলীগের মুখোশধারী কিছু অরাজক কর্মীরা (ছবিতে স্পষ্ট)।

মানবতা আজ কোথায়?
এভাবেই ধর্ষণের খবর পড়তে পড়তে এবং ভিকটিমের বিচার চাওয়ার দাবি শুনতে শুনতে আমরা ক্লান্ত।
আর কত?

দলমত নির্বিশেষে ধর্ষকের একমাত্র পরিচয় হচ্ছে সে ধর্ষক, সে কোন দল করে, কোন চেয়্যারপারসন বা কতবড় ক্ষমতাধারী সেটা দেখার কোনো দরকার আমাদের/সরকারের নাই। সকল ক্ষমতার উর্ধ্বে গিয়ে ধর্ষকের চূড়ান্ত বিচার চাই (অবশ্যই পদক্ষেপ গ্রহনে প্রচলিত আইনব্যাবস্থার বিলম্ব গ্রহণযোগ্য নয়)। প্রয়োজন হলে ধর্ষণের উপর বিশেষ নজর (জিরো টলারেন্স) দিয়ে প্রচলিত আইনব্যাবস্থার সংশোধন করতে হবে।

#বিঃদ্রঃ- ধর্ষণ মামলার জন্য কঠোর আইন প্রণয়ন ও তা বাস্তবায়নের জন্য শাসন বিভাগের বিশেষ নজরদারি স্থাপনের জোর দাবি জানাচ্ছি।

নূর আলম শেখ
মার্কেটিং বিভাগ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়