ধর্ষণ চেষ্টাকালে জনতার হাতে আটক যুবক কারাগারে

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৯:৪৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০২০

এম এ মোতালিব ভুঁইয়া :

দোয়ারাবাজারে এক যুবতীকে ধর্ষণের চেষ্টাকালে এলাকাবাসীর হাতে আটক আল আমিন নামে এক যুবককে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের সুরিগাও গ্রামে ধর্ষণ চেষ্টার এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের কালাইউড়া গ্রামের আঃ সামাদের ছেলে আল আমিনের সাথে প্রায় ১ বছর আগে সুরিগাও গ্রামের যুবতীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। চলতে থাকে তাদের মন দেয়া নেয়া। এরই মধ্যে আল আমিন অন্যত্র বিয়ে করতে গেলে যুবতী বিয়ের জন্যে চাপ দিলে গ্রাম্য বিচার শালিশে আপোষ মিমাংশায় আল আমিন ও যুবতী পৃথক পৃথক স্থানে বিয়ে করেন।তারপরও থেমে থাকেনি তাদের প্রেম ভালোবাসা। মোবাইলে নিয়মিত যোগাযোগ ও আল আমিন মাঝে মধ্যে দেশে এসে সাক্ষাত করতো। বিয়ের কিছুদিন পরে আল আমিনের পরোচনায় স্বামীকে ডিভোর্স দিয়ে বাড়ীতে চলে আসে। বাড়ীতে আসার সুবাদে পাশবর্তী গ্রামের বাসিন্দা মােঃ আল আমিন তাদের বাড়ীতে আসা যাওয়ার সুবাদে বিভিন্ন ধরনের প্রস্তাব দিয়ে আসছে তার সাথে বিভিন্ন অশ্লীল অঙ্গ ভঙ্গি করে এরই ধারাবাহিকতায় গত শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) গভীর রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেওয়ার জন্যে ঘর থেকে বাহির হইলে লম্পট আল আমিন যুবতীর মুখে চাপ দিয়া ধরে জোরপূর্বক বসত বাড়ীর পুকুবপাড়ে নিয়া পুকুরপাড়ের মাটিতে শুয়াইয়া শরীরের স্পর্শকাতর বিভিন্ন স্থানে চাপ নিতে থাকে এবং পড়নে থাকা সেলুয়ার খুলিয়া ধর্ষণের চেষ্টা করে। তখন যুবতীর চিৎকার শুনে এলাকাবাসী ঘটনাস্থল থেকে আল আমিনকে আটক করেন।স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিত্নে মধ্যস্থতায় বিচার করিয়া দিবে বলে গড়িমসি শুরু করলে পরিবারের পক্ষ থেকে দোয়ারাবাজার থানা পুলিশকে সংবাদ দিলে দোয়ারাবাজার থানা পুলিশ যুবতী ও আল আমিনকে থানায় নিয়ে আসেন।দোয়ারাবাজার থানার মামলা নং ১১ তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ খ্রি: ধারা:নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০(সংশোধিত ৩)এর ৯(৪)(খ)।

দোয়ারাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)মুহাম্মদ নাজির আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে নিয়মিত মামলা রুজু করিয়া আটক আল আমিনকে সুনামগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।