দ্বিতীয় দিনেও বন্ধ ছিলো হিলি-বগুড়া রুটে যাত্রিবাহী বাস চলাচল

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৮:৫৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০১৯

মোস্তাকিম হোসেন,হিলি স্থলবন্দর সংবাদদাতা:

নতুন সড়ক পরিবহন আইন সংস্কারের দাবীতে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর থেকে দ্বিতীয় দিনেও হিলি-বগুড়া রুটে অনিদ্রিষ্টকালের জন্য যাত্রিবাহী বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন চালকরা। এতে করে বিপাকে পড়েছেন ওই পথে চলাচলরত যাত্রিরা।

গতকাল শনিবার সকাল থেকেই চালকরা নিজ নিজ গাড়ি বন্ধ রেখে এই কর্মসূচি পালন করছেন। এতে করে ওই পথে চলাচলরত যাত্রিরা বাস না পেয়ে বিপাকে পড়েছেন, বিকল্প উপায়ে বাড়তি ভাড়ার মাধ্যমে গন্তব্যে পৌছানোর চেষ্টা করছেন। তবে হিলি-দিনাজপুর, হিলি-জয়পুরহাট রুটে বাস চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

বাস চালকরা জানান, আমরা চালকরা বাস চালিয়েই কেউতো ইচ্ছা করে দুর্ঘটনা ঘটাইনা বা কাউকে চাপা দেয়না। সড়কে ভ্যান রিক্সা সিএনজির যে চাপ তারাতো ডান বাম বোঝেনা, কিন্ত এখন কোন কারনেই একটি দুর্ঘটনা ঘটলেই তাতে কেউ মারা গেলে নতুন আইনে চালকের মৃত্যুদন্ড বা আহত হলে ৫ লাখ টাকা দিতে হবে। আমাদের এতো টাকা দেওয়ার সামর্থও নাই আর আমরা বাস চালায়ে জেলখানায় যেতে চাইনা। তাই এই নতুন আইন সংস্কারের দাবীতে আমরা নিজেরা বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছি।

হাকিমপুর (হিলি) মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান মিলন জানান, হিলি থেকে বগুড়া রুটে চলাচলকারী অধিকাংশ গাড়িরই কোনো ফিটনেস সনদ ও রুট পারমিট নেই।ফলে নতুন সড়ক নিরাপত্তা আইন কার্যকর হলে এসব গাড়ি নিয়ে চলাচল করলে আইন অনুযায়ী চালকদের বিভিন্ন ঝামেলায় পড়তে হতে পারে। মামলা খেলে জরিমানা কে গুনবে, এমন শঙ্কায় রয়েছেন চালকরা।এই জন্য বাস চালকরা গাড়ি বের করতে ভয় পাচ্ছে। তবে দিনাজপুর জেলা মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষ থেকে কোন প্রকার বিধি নিষেধ নেই।