তাহিরপুরের শান্তিপুরে নদী তীর কেটে খনিজ বালু লুটে বিক্রির ঘটনায় আটক, ১

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১১:২৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টার, সুনামগঞ্জ :

বালু বোঝাই তিনটি ট্রলার সহ সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে লাল মিয়া নামে এক বালু লুটেরা চক্রের হোতাকে উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে বালু বোঝাই তিনটি ট্রলার সহ আটক করেছেন।
মঙ্গলবার বালু বোঝাই একটি ট্রলার জব্দ দেখিয়ে মামলা দায়ের পুর্বক তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।
আটককৃত লাল মিয়া উপজেলার উওর বড়দল ইউনিয়নের শান্তিপুর গ্রামের মৃত তারা মিয়ার ছেলে।
মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার ইউনিয়ন ভুমি উপ সহকারি কর্মকর্তা বাদী হয়ে লাল মিয়াকে আটক দেখিয়ে ৬ জনের নামোল্লেখ সহ আরো ৫ হতে ৬ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ,
মামলা ও স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার শান্তিপুর গ্রামের লাঠিয়াল বাহিনীর প্রধান লাল মিয়ার নেতৃত্বে ছোট ছোট বেশ কয়েকটি ট্রলারে (নৌকা) সোমবার রাতে মাহরাম নদী তীরের শান্তিপুর হতে বালু লুটে শতাধিক শ্রমিক নামানো হয়।
গোপন সংবাদের ভিক্তিত্বে খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ ওই রাত সাড়ে দশটায় অভিযানে নেমে বালু বোঝাই তিনটি ট্রলার সহ লাল মিয়াকে আটক করেন।
এ সময় কৌশলে লাল মিয়ার অন্যান্য সহযোগীরা পালিয়ে যায়।
পরবর্তীতে প্রশাসন বালু বোঝাই তিনটি ট্রলার স্থানীয়ভাবে জিম্মায় দিয়ে লাল মিয়াকে নিয়ে রাতেই থানায় ফিরেন।
পরবর্তীতে প্রভাবশালী বালু খেকো চক্র সরকারিকাজে বাঁধা দান করে জিম্মাদারের নিকট হতে জোরপুর্বক বালু বোঝাই দুটি ট্রলার ছিনিয়ে নিয়ে যায়।,
সোমবার রাতে অভিযানের পরপরই উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) পদ্মাসন সিংহ বালু বোঝাই তিনটি ট্রলার সহ লাল মিয়াকে আটকের তথ্য গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করে বলেন, নৌকাগুলো থানায় নিয়ে আসার পর মঙ্গলবার সকালেই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ওই রাতে অভিযানে থাকা তাহিরপুর থানার এসআই জহুর লাল দও’র নিকট মঙ্গলবার এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শুনেছি জিম্মাদারের নিকট হতে বালু বোঝাই দুটি ট্রলার কে বা কারা জোর পূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে গেছে।,