ঢাবি অধ্যাপকের চাকুরিচ্যুত করায় রাবি জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের নিন্দা ।

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১:৫৫ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২০

রাবি প্রতিনিধি :

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক মোর্শেদ খানকে ভিন্নমতের কারণে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে দাবি করে এ ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের শিক্ষকরা।

গতকাল শুক্রবার জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরামের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি অধ্যাপক ড. হাবীবুর রহমান, এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. আওরঙ্গজীব মো. আবদুর রাহমান এক বিবৃতিতে প্রতিবাদ জানিয়েছেন,
তারা বলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মোর্শেদ হাসান খানকে ভিন্নমতের কারণে রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলকভাবে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। আমরা এই অনাকাঙ্খিত ও ন্যাক্কারজনক সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। আমরা মনে করি, গণতান্ত্রিক চর্চা ও বাক-স্বাধীনতার বিরুদ্ধে ঢাবির এই ধরনের অবস্থান প্রতিষ্ঠানটির গৌরবজ্জল ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে ভুলুন্ঠিত করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্স্ট স্ট্যাটিউটের ৪৫(৩)(৪) উপধারায় এবং বিশ্ববিদ্যালয় ৭৩র আদেশের ৫৬(৩) উপধারায় চাকরিচ্যুতির বিষয়ে স্পষ্ট নির্দেশনা দেওয়া আছে। সেখানে বলা হয়েছে, ‘নৈতিক স্খলন, অদক্ষতা, বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও চাকরিবিধি পরিপন্থী’ কাজের সাথে যুক্ত থাকার অপরাধে কোনো শিক্ষক বা কর্মকর্তাকে টার্মিনেট করা যেতে পারে। কিন্তু ড. মোর্শেদের ২০১৮ সালের মার্চে একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত নিবন্ধটি উল্লিখিত অপরাধের কোনোটিতেই পড়ে না।

রাবির জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আমরা আশা করি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অনতিবিলম্বে এই বৈষম্য ও পক্ষপাতমূলক সিদ্ধান্তটি প্রত্যাহার করে স্বাধীনভাবে মত প্রকাশ এবং মুক্ত জ্ঞানচর্চায় ভূমিকা রাখবে।

বিবৃতিটিতে স্বাক্ষর প্রদান করেন জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি অধ্যাপক ড. হাবীবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. আওরঙ্গজীব মো. আবদুর রাহমান এবং ফোরামের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য—অধ্যাপক ড. শামসুল আলম সরকার, অধ্যাপক ড. সি এম মোস্তফা, অধ্যাপক ড. আশরাফুজ্জামান, অধ্যাপক ড. এনামুল হক, অধ্যাপক ড. মামুনুর রশীদ, অধ্যাপক ড. এ এন এম জাহাঙ্গীর কবীর, অধ্যাপক ড. ফরিদুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. আবুল হাসান, সাজ্জাদুর রহিম, ড. তারিকুল ইসলাম, ড. আবদুল খালেক, অধ্যাপক ড. মাসুদ পারভেজ রানা, ড. শাহানা পারভীন, অধ্যাপক ড. সাইফুল ইসলাম ফারুকী, অধ্যাপক ড. রেজাউল করিম-২, অধ্যাপক ড. এফ নজরুল ইসলাম, ড. সৈয়দ সরওয়ার জাহান, প্রফেসর ড. যাহার-ই-তাশনীম, ড. মোস্তাফিজুর রহমান, ড. ইসমাইল তারেক, ড. মাহবুবার রহমান, ড. জাহাঙ্গীর হোসেন, ড. আতিকুল ইসলাম, ড. আরিফুল হাসান, ড. আবুল কালাম আজাদ, ড. এম আসাদুল হক, ড. এম মোস্তাফা কামাল, ড. আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।