ডামুড্যা উপজেলা আওয়ামী রাজনীতিতে সততার এক মূর্ত প্রতীক আবুল বাসার আবু বেপারী

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৩:২৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২০

——-
ডামুড্যা পৌরসভা অন্তগর্ত ঐতিহ্যবাহী বেপারী পরিবারের মরহুম হাফেজ হাবীবুর রহমান বেপারীর ঘর আলোকিত করে জন্ম নেন জনাব আবুল বাসার বেপারী। ছোটবেলা থেকেই ন্যায় পরায়ন এই মানুষটি শৈশব থেকেই শিক্ষা,একতা ও সততার প্রতি ছিলেন অবিচল।দেশপ্রেম তার হৃদয়ে গাথা।তাইতো জীবনের মায়া পরিত্যাগ করে জাতির জনকের ডাকে সারা দিয়ে অংশ নেন মহান মুক্তিযুদ্ধে। রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে বিজয় লাভ করে ফিরে আসেন লাল সবুজের পতাকা বুকে নিয়ে। তার সংগ্রাম এখানেই থেমে থাকেনি। যুদ্ধের পর যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা, অসহায় মুক্তিসংগ্রামীদের পাশে থাকতে কখনো কার্পন্য করেন নি জাতীয় বীর জননেতা আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাক সাহেবের স্নেহধন্য এই মুজীব সৈনিক।জীবনের এই পর্যায়ে এসেও ডামুড্যা উপজেলার প্রতিটি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের নিকট আশার আলো জনাব আবুল বাসার আবু বেপারী।অর্থ লিপ্সা কে বিসর্জন দিয়ে মানব সেবাকে ব্রত হিসাবে আলিঙ্গন করে অগ্রসর হওয়া এই মানুষটি তাইতো বারংবার সাধারন মুক্তিযোদ্ধাদের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়ে আসীন হয়েছেন থানা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার পদে। দীর্ঘ এক যুগেরও বেশি সময় ধরে ডামুড্যা পৌরসভা আওয়ামীলীগ এর দায়িত্ব পালনকারী এই নেতা জনগনের নিকট নিজেকে তুলে ধরতে সক্ষম হয়েছেন সততার সূর্য হিসেবে।জাতীয় বীর আলহাজ্ব আব্দুর রাজ্জাক পরিবারের প্রতি আনুগত্যশীল এই নেতার বিশ্বাস একদিন জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে উন্নয়নের মহাসড়ক পাড়ি দিয়ে বিশ্বের বুকে মাথা উচু করে দাড়াবে তার ও তাদের মতো বীর সেনানীদের শেষ স্বপ্ন,জাতির পিতার “সোনার বাংলা”। বলা যায়,যতদিন জনাব আবুল বাসার আবু বেপারীর মতো সৎ নেতারা আওয়ামীলীগের ছায়া হয়ে থাকবে ততদিন এই মাটিতে কখনো স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি মাথা উচু করে দাড়াতে পারবে না।

লেখক:লেনিন তালুকদার
অনার্স ২য় বর্ষ(সমাজবিজ্ঞান বিভাগ)
ঢাকা কলেজ।