ছাতকে শহীদ ডাক্তার মঈন উদ্দিন স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ২:৩৬ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৫, ২০২০

হাসান আহমদ, ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি:

ছাতকে শহীদ ডাক্তার মঈন উদ্দিন স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার উত্তর খুরমা ইউনিয়নের নাদামপুরস্থ ইউনিয়ন পরিষদ হল রুমে এ খাদ্য সামগ্রী বিতরণী উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শহীদ ডাক্তার মঈন উদ্দিন স্মৃতি সংসদের সভাপতি, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক, উত্তর খুরমা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিল্লাল আহমদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম মো. ফজলুল হক এর পরিচালনায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণী পূর্ব আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সুনামগঞ্জ-৫, ছাতক-দোয়ারাবাজার আসনের সংসদ সদস্য, জাতীয় সংসদের প্যানেল স্পিকার মুহিবুর রহমান মানিক।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাদাত মো. লাহিন, শহীদ ডাক্তার মঈন উদ্দিন স্মৃতি সংসদের উপদেষ্ঠা ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন, মঈন উদ্দিন স্মৃতি ট্রাস্টের সদস্য সচিব খছরুজ্জামান, সিলেট ল’ কলেজের সাবেক এজিএস এডভোকেট আলা উদ্দিন, সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সহ-সভাপতি এম রশিদ আহমদ, স্মৃতি সংসদের উপদেষ্ঠা ও বিশ্ব স্বজন ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ফজরুল হক এনাম।

শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন, স্মৃতি সংসদের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা রিয়াজ আল মামুন। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক মেম্বার আশকর আলী আছকির, মুরব্বি মাহমদ আলী, আবু বকর সিদ্দিক ও আবদুল মছব্বির।

সভা শেষে শহীদ ডাক্তার মঈন উদ্দিন স্মৃতি সংসদের পক্ষ থেকে উত্তর খুরমা ইউনিয়নের ৩৭টি গ্রামের ২শ’৮০জন গরীব অসহায় পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে প্রতি প্যাকেটে ছিল চাল, ডাল, পেঁয়াজ, সোয়াবিন তৈল, সাবান ও সেমাই। এ বিতরণী কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মুহিবুব রহমান মানিক এমপি। এসময় এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও শহীদ ডাক্তার মঈন উদ্দিন স্মৃতি সংসদের সর্বস্থরের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, আমাদের ইউনিয়নের গর্ব ছিলেন শহীদ ডাক্তার মঈন উদ্দিন করোনা যুদ্ধে শহীদ হওয়া দেশের প্রথম ডাক্তার। তিনি সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপকের দায়িত্বে থেকে করোনার সময়ে রোগিদের চিকিৎসা সেবা দিতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়ে ১৫ এপ্রিল মারা যান। তিনি তার স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে বলেন, করোনার কঠিন সময়ে অনেক চিকিৎসকরা হাসপাতাল ছেড়ে তখন স্বেচ্ছায় বাসা-বাড়িতে অবস্থান করেছিলেন। কিন্তু সেসময় ডাক্তার মঈন উদ্দিন চালিয়ে গেছেন চিকিৎসা সেবা। তার এ অবধান স্মরনীয় হয়ে থাকবে।##