ছাতকে দিনব্যাপী মতবিনিময়, গুচ্ছগ্রাম ও আশ্রয়ন প্রকল্প পরিদর্শনে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৪:৩৮ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৮, ২০২০

ছাতক (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি::

সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের ভরেরগাঁও (বুড়াইরগাঁও) অরুনোদয় গুচ্ছ গ্রাম পরিদর্শন করেছেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব ও পরিচালক স্থানীয় সরকার) মো. ফজলুল কবীর। রোববার বিকেলে তিনি অরুনোদয় গুচ্ছগ্রামের বসবাসকারী ২৬টি পরিবারের সদস্যদের খোঁজ খবর নেন। পরে গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে গুচ্ছগ্রামে বৃক্ষরোপন কর্মসূচির উদ্বোধন করে প্রতিটি পরিবারকে দুটি করে গাছ বিতরণ করেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার। এসময় স্থানীয় বাসিন্ধারা নলকূপ ও যাতায়াতের রাস্তাটি সংস্কারের দাবী জানান। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. গোলাম কবির, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল, গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আখলাকুর রহমান, সাবেক চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন, ছৈলা আফজলাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গয়াছ আহমদ, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক শাহাব উদ্দিন, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মতিউর রহমান, ইউপি সচিব অধীর রঞ্জন দাস, ইউপি সদস্য আবদুর রহমান, আলকাব আলী, মাহমদ আলী, সুরেতাজ মিয়া, সামছুল হক, হোসাইন আহমদ লনি ও নিজাম উদ্দিন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দৈনিক ইনকিলাব ও শ্যামল সিলেট পত্রিকার সাংবাদিক কাজি রেজাউল করিম রেজা, দৈনিক আমার সংবাদের সাংবাদিক মোশাহিদ আলী ও দৈনিক সিলেটের ডাকের সাংবাদিক বদর উদ্দিন আহমদ, ইউডিসি উদ্যোক্তা সুজেল মিয়া, গ্রাম পুলিশ তফাদার আলা উদ্দিন, মহল্লাদার রইছ আলী, রসিমত আলী, নুরুল আমীনসহ আরও অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। এর আগে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ পরিদর্শন করে জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেছেন।
সকালে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মো. ফজলুল কবীর ছাতকে কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় করেন। উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. গোলাম কবিরের সভাপতিত্বে উপজেলা সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় ভৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস ও সাম্প্রতিক বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করা হয়। এসময় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লিপি বেগম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তৌফিক হোসেন খান, সাব রেজিষ্ট্রার আবদুর রশিদ ধলা মিয়া, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল, সমাজসেবা কর্মকর্তা শফিউর রহমান, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কেএম মাহবুবুর রহমান, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মানিক চন্দ্র দাশ, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা চৌধূরী রাজিব মোস্তফা, সমবায় কর্মকর্তা মতিউর রহমান, পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মাসুদ সরকার, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক শাহাব উদ্দিন, ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর মোস্তফা আহসান হাবীব, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা গোপাল চন্দ্র দাশ, থানার এসআই সৈয়দ আবদুল মান্নান, উপ-সহকারী প্রকৌশলী এমএ জাসির, আমার বাড়ি আমার খামার প্রকল্প কর্মকর্তা জুলকার নাঈন, উপজেলা আনসার ভিডিপির ইন্সট্রাক্টর শফিকুর রহমান, সহকারী পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা প্রনব লাল দাস, মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমিক সুপারভাইজার সুয়েব আহমদ প্রমূখ।
মতবিনিময় শেষে তিনি হাসনাবাদ ঝাওয়া আশ্রয়ন প্রকল্প পরিদর্শনে যান। সেখানে বসবাসরত মানুষের খোঁজখবর নিয়ে তিনি অসহায় ৬০টি পরিবারের মধ্যে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করেন। বিতরণকৃত প্রতিটি প্যাকেটে ত্রান সামগ্রীর মধ্যে ছিল ১০ কেজি চাল ও ২ কেজি আলু। এসময় কালারুকা ইউপি চেয়ারম্যান অদুদ আলমসহ স্থানীয় লোকজন উপস্থিত ছিলেন।##