চকরিয়ায় মাতামুহুরী নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন : ড্রেজারসহ ১০টি মেশিন গুড়িয়ে ধ্বংস

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৬:৪৯ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৬, ২০২০

চকরিয়া প্রতিনিধি :
কক্সবাজারের চকরিয়ায় বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ ও পরিবেশ আইন লঙ্ঘন করে মাতামুহুরী নদী থেকে ড্রেজার ও সেলোমেশিন বসিয়ে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনকালে উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চালায়। অভিযানে ১০টি মেশিন ও বিপুল পরিমাণ পাইপ গুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়েছে। এসময় অবৈধ বালু উত্তোলন কাজে নিয়োজিত ৬ জনকে আটক করা হয় এবং বালু উত্তোলনে নিয়োজিত ৩ জন শ্রমিককে মোবাইল কোর্টে তিনটি মামলায় ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (৫অক্টোবর) বিকালে মাতামুহুরী নদীর বিভিন্ন বালু পয়েন্টে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানভীর হোসেন এ অভিযান পরিচালনা করেন।

জানাগেছে, চকরিয়া উপজেলার কোনাখালীস্থ বাগগুজারা ব্রীজ সংলগ্ন পয়েন্ট ও বিএমচর ইউনিয়নস্থ নির্মাণাধীন রেল সেতু সংলগ্ন গোবিন্দপুর, এবং বেতুয়া বাজার সংলগ্ন পয়েন্ট মাতামুহুরী নদীতে ভাসমান বড় বেইজের ড্রেজার ও সেলোমেশিন মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছিল কতিপয় অসাধু বালু ব্যবসায়ী চক্র। এসব বালু উত্তোলন মেশিন বন্ধ রাখার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেয়ার পরও অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন অব্যাহত রাখেন বেশ কিছু বালু উত্তোলনকারী ব্যক্তি। সোমবার বিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালতের টীম অভিযান চালিয়ে ওইসব বালু পয়েন্ট থেকে ১০টি মেশিন ও বেশকিছু পাইপ গুড়িয়ে দিয়ে ধ্বংস করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

অভিযানের ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তানভীর হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এক শ্রেণির অসাধু ব্যক্তি পরিবেশ আইন লঙ্ঘন করে মাতামুহুরী নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে ড্রেজার ও সেলোমেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করে আসছিল।
এ অবস্থার কারণে সরকার বিপুল অংকের রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এনিয়ে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অবৈধ বালু উত্তোলনকারীদের তাগাদা জানানো হয়। এরপরও প্রশাসনের নির্দেশনা অমান্য করে ড্রেজার ও সেলোমেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন বন্ধ না হাওয়ায় বিষয়টি আদালতের নজরে আসলে সোমবার বিকালে মাতামুহুরী নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।
তিনি আরো বলেন, অভিযানের সময় বালু পয়েন্ট থেকে ভাসমান বড় বেইজের ড্রেজার ও মেশিনসহ মোট ১০টি ড্রেজার ভেঙ্গে বেশকিছু পাইপ জব্দ করে গুড়িয়ে ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে। অভিযানের সময় বালু উত্তোলনে নিয়োজিত ৬ ব্যক্তিকে আটক করা হয়। বালু উত্তোলনে নিয়োজিত ৩ জন শ্রমিককে মোবাইল কোর্টে তিনটি মামলায় ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়৷ অপর আটক ৩ জনের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করা হয়েছে৷
ভ্রাম্যমান আদালতের এ অভিযানে সার্বিক ভাবে সহযোগিতা করেন বদরখালী নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির একটি টীম।