গাইবান্ধায় ‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা’ শীর্ষক স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ, জুন ২০, ২০২০

আব্দুল মুনতাকিন জুয়েল,, গাইবান্ধা প্রতিনিধি :

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসন কর্তৃক প্রকাশিত ‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা’ শীর্ষক স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন করা হয়। স্মরণিকার ফিতা কেটে আনুষ্ঠানিকভাবে মোড়ক উন্মোচন করেন জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি এমপি। জেলা প্রশাসক মো. আবদুল মতিনের সভাপতিত্বে মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মুহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম, সিভিল সার্জন ডাঃ এবিএম আবু হানিফ, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফরহাদ আব্দুল্যাহ হারুন বাবলু, সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট ও ‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা’ স্মরণিকার সম্পাদক জেবুন নাহার, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহ সারোয়ার কবীর, পৌরসভার মেয়র অ্যাড. শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর মিলন, মুক্তিযোদ্ধা গৌতম চন্দ্র মোদক, অধ্যাপক জহুরুল কাইয়ুম প্রমুখ। মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে জেলার মুক্তিযোদ্ধা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধার গোলাম রব্বানীর মাতাসহ স্বজনরা, জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।
মোড়ক উন্মোচনকালে প্রধান অতিথি জাতীয় সংসদের হুইপ মাহাবুব আরা বেগম গিনি এমপি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ দেশের এবং গাইবান্ধার মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকে সংরক্ষণ করে রাখতে ‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা’ শীর্ষক এই স্মরণিকাটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এধরণের একটি তথ্য সমৃদ্ধ স্মরণিকা প্রকাশের জন্য তিনি সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।
প্রসঙ্গত উলে­খ্য যে, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা শীর্ষক স্মারক সংকলনে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও সংগ্রাম, গাইবান্ধায় বঙ্গবন্ধু, গাইবান্ধার বধ্যভূমি ও স্মৃতিস্তম্ভ, মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত অস্ত্রের ডামি, খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা, শহীদ পরিবারের সদস্যদের কাছে লেখা বঙ্গবন্ধুর চিঠিসহ মুক্তিযুদ্ধ সম্পার্কিত বিভিন্ন ছবি, জেলার মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতিচারণমূলক লেখা নিয়ে এই সংকলনটি প্রকাশিত হয়। জেলা প্রশাসক মো. আবদুল মতিনের উদ্যোগে গাইবান্ধা জেলা প্রশাসন কর্তৃক প্রকাশিত ১৫৪ পৃষ্ঠার মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা শীর্ষক তথ্য সমৃদ্ধ এই স্মারক গ্রন্থটির মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আকর্ষণীয় প্রচ্ছদটি অংকন করেছেন দেশের বরেণ্য চিত্রশিল্পী শাহ মাইনুল ইসলাম শিল্পু এবং সম্পাদনা করেছেন ‘মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা’ স্মরণিকার কমিটির আহবায়ক ও সম্পাদক অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট জেবুন নাহার।