কোহেলিয়া পুনঃখননের দাবিতে সিইএইচআরডিএফ’র ক্যাম্পেইন

নিউজ নিউজ

ভিশন ৭১

প্রকাশিত: ১২:২৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৪, ২০২০

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃনদী সুরক্ষা বিষয়ক সংগঠন সেন্টার ফর এনভায়রনমেন্ট, হিউম্যান রাইটস এন্ড ডেভেলপমেন্ট ফোরাম এর আয়োজনে মহেশখালীর অন্যতম নদী কোহেলিয়া পুনঃখননের দাবিতে ক্যাম্পেইন করেছে।

মহেশখালী উপজেলার ধলঘাটাস্থ কোহেলিয়া নদীর পাড়ে এ ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হয়।

ফোরামের প্রধান নির্বাহী মোঃ ইলিয়াছ মিয়া’র সভাপতিত্বে ও পরিচালক(সমন্বয়) আব্দুল মান্নান রানা’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ক্যাম্পেইনে বক্তব্য রাখেন সিইএইচআরডিএফ পরিচালক(প্রোগ্রাম) রুহুল আমিন, সিইএইচআরডিএফ ধলঘাটা ফোরামের সমন্বয়ক এরশাদ উল্লাহ, ব্যবস্থাপক এস্তেখাব উদ্দিন, এসেন্ডেন্ট স্টুডেন্টস অব ধলঘাটার আজম খান প্রমূখ।

বক্তারা কোহেলিয়া নদীর পুনঃ খননের দাবিতে বক্তব্য রাখেন। তারা বলেন, কোহেলিয়া নদী মহেশখালীবাসীর প্রাণের নদী। এ নদীর উপর মহেশখালীর অর্ধেক মানুষের জীবন-জীবিকা নির্ভর করে।মহেশখালীর কালারমার ছড়া, মাতারবাড়ী ও ধলঘাটা ইউনিয়নের মানুষের সকল অর্থনৈতিক কাজের সাথে এ নদীর সম্পর্ক অবিচ্ছেদ্য।

তারা আরো বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ করতে গিয়ে হাজার টন বালি দ্বারা এ নদী ভরাট হয়ে গিয়েছে। এমনকি দেড় বছর আগে নাব্যতা হারিয়েছে।

তারা অবিলম্বে কোহেলিয়া পুনঃখনব করার দাবি তোলেন।

সভাপতির বক্তব্যে সিইএইচআরডিএফ এর প্রধান নির্বাহী মোঃ ইলিয়াছ মিয়া বলেন, নদী বাংলাদেশের প্রাণ। ধলঘাটা-মাতারবাড়ীর চিংড়ি চাষ, ধান চাষ ও লবণ মাঠের জন্য যে পানি প্রয়োজন তা কোহেলিয়া নদী মিটায়। কিন্ত বর্তমানে কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিষ্কাশিত মাটির কারণে এটি সম্পূর্ণ তার রুপ হারিয়েছে। তিনি বলেন এ নদীর জীববৈচিত্র্য ও প্যারাবন এতদাঞ্চলকে ঘূর্ণিঝড় ও প্রাকৃতিক দূর্যোগ থেকে মানুষকে সুরক্ষা দেয়। কিন্ত ভরাট হয়ে যাওয়ায় এটি দিনদিন তার নিজস্ব রুপ হারিয়ে ফেলছে।

তিনি সরকার ও স্থানীয় কতৃপক্ষ এবং কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র কতৃপক্ষের প্রতি আহবান জানান, ধলঘাটার অবশিষ্ট মানুষের জীবন-জীবিকা রক্ষায় এ নদীকে পুনরায় খনন করার জন্য।

ক্যাম্পেইনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিইএইচআরডিএফ এর উপ-পরিচালক(রিসার্চ ও এডভোকেসী) ইয়াসির আরফাত, উপ-সহকারী পরিচালক( পরিবেশ সুরক্ষা) আশেক উল্লাহ এবং স্থানীয় জনগণ।