কিশোরগঞ্জে ভৈরবে দুই ডাকাতকে আটক করেছে নৌ পুলিশ

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৬:৪৪ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৫, ২০২০

মোঃ নাঈম মিয়া(কিশোরগঞ্জ জেলা)প্রতিনিধিঃ

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে পৃথক অভিযানে দুই নৌ ডাকাতকে আটক করেছে নৌ পুলিশের সদস্যরা।

আজ (৫ আগষ্ট) বুধবার ভোর রাতে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটককৃত আসামিরা হলেন, বি- বাড়িয়া জেলার আশুগঞ্জ উপজেলার চর-চারতলা এলাকার আঃ জলিল মিয়ার ছেলে রাসেল(২৯) এবংকিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব উপজেলার ছাগাইয়া (মোল্লা বাড়ির) মো. নুরু মিয়ার ছেলে দেলু হোসেন(৩৮)।

নৌ পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নৌ থানার পরিদর্শক তরিকুল ইসলামের নেতৃত্বে উপ-পরিদর্শক মোঃ রাসেল মিয়ার সঙ্গীত ফোর্স নিয়ে উপজেলা আগানগর ইউনিয়নের ছাগাইয়া গ্রামের মোল্লা বাড়ি থেকে দিলু হোসেন এবং আশুগঞ্জ চর সোনারাম পুর এলাকা থেকে রাসেল কে আটক করা হয়।

পুলিশ সূত্রে আরও জানা যায়, ঈদের দিন সকালে নৌকা বোঝাই যাত্রী ও গোরু নিয়ে অষ্টগ্রামের উদ্দেশ্যে যাওয়ার পথে ভৈরব-আশুগঞ্জ মধ্যবর্তী স্থানে অষ্টগ্রামের হান্নান মিয়াসহ কয়েকজনকে মারধর করে নগদ টাকাসহ গরু ও মহিষ নিয়ে যায়।
এ ব্যাপারে মো. হান্নান মিয়া আশুগঞ্জ থানায় ১২ জনকে আসামি করে একটি ডাকাতি মামলা করেন।

এ বিষয়ে ভৈরব নৌ-থানার পুলিশ পরিদর্শক এসআই রাসেল জানান, ঈদের দিন সকালে গরু বিক্রির টাকা ও অবিক্রিত গরু নিয়ে হান্নান মিয়াসহ আরো কয়েকজন ট্রলার যোগে তাদের বাড়ি অষ্টগ্রাম যাওয়ার পথে এজাহারভূক্ত আসামি রাসেল ও দেলুসহ ১২ জন ডাকাত দল তাদের মারধর করে নগদ ২ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকাসহ ৪টি মহিষ ও ১টি গরু নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে হান্নান মিয়া আশুগঞ্জ থানায় একটি ডাকাতি মামলা করিলে সেই পেক্ষিতে বুধবা ভোর রাতে মামলার ১নং আসামি মো. রাসেল মিয়া ও সহযোগী দেলু মিয়াকে আটক করা হয়।

এসময় তাদের কাছ থেকে ডাকাতি করা টাকাসহ মহিষ ও গরু উদ্ধার করা হয়। আর তাদের দেয়া তথ্যমতে বাকী ১০ জন আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

এ বিষয়ে নৌ থানার পরিদর্শক তরিকুল ইসলাম জানায়, আশুগঞ্জ চর সোনারাম পুর এলাকা থেকে ভোর রাতে অভিযানে রাসেলকে আটক করা হয়। পরে রাসেলের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ভৈরবের ছাগাইয়া মোল্লা বাড়ি এলাকা থেকে দিলু হোসেনকে আটক করা হয় এবং আটককৃতদেরকে বি-বাড়িয়া কারাগারে প্রেরণ করা হয়।