কালারমারছড়া আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জহিরুল আলম বদনের জানাযায় শোকার্ত মানুষের ঢল

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৪:১১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০১৯

আবু বক্কর ছিদ্দিক , মহেশখালী :

কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ জহিরুল আলম বদনের নামাজে জানাযায় ১৭ নভেম্বর রবিবার সকাল ১০ ঘটিকার সময় ইউনুছখালী নাছির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে সম্পন্ন হয়েছে । কালারমারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের এই প্রিয় নেতার জানাযায় উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে দলীয় নেতাকর্মী ছাড়াও সর্বস্থরের লোকজন এতে অংশ নেন । এদিকে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জহিরুল আলম বদনের জানাযায় প্রতিটি ওয়ার্ড় হতে সকাল ৮ট থেকে শত শত নেতা-কর্মী আসতে থাকে তাদের প্রিয় নেতার নামাজে জানাযায় । ইউনুছখালী নাছির উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে কানায় কানায় ভরপুর হয়ে যায় প্রিয় নেতার এই নামাজে জানাযায় । এ সময় জহিরুল আলম বদনের আত্বজীবনী তুলে ধরে স্মৃতি চারণ উপলক্ষ্যে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনার আয়োজন করে জানাযার মাঠে । এতে বক্তব্য রাখেন মহেশখালী – কুতুবদিয়া আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক । মহেশখালী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব আনোয়ার পাশা চৌধুরী , মহেশখালী পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া , জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আজিজুর রহমান , কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মোঃ ওসমান গনি , হোয়ানক ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ফরিদুল আলম , মাতারবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগে সহ-সভাপতি এনামুল হক চৌধুরী রুহুল , উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মাষ্টার রুহুল আমিন , কালারমারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম কুদ্দুছ চৌধুরী , ধলঘাটা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহসান উল্লাহ বাচ্চু , কালারমারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ , গোরকঘাটা ইউপি’র সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শামসুল আলম , উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ছালেহ আহমদ , উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মোঃ হাসান বশির , উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য সেলিম চৌধুরী , কালারমারছড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মাষ্টার বশির আহমদ , মাতারবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি জি এম ছমি উদ্দিন , সাধারন সম্পাদক এস এম আবু হায়দার , সাংগঠনিক সম্পাদক নবীর হোসেন ভুট্টো , উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক সাজেদুল করিম , যুগ্ন আহবায়ক এডঃ শেখ কামাল , যুগ্ন আহবায়ক সেলিম উল্লাহ সেলিম , উপজেলা বঙ্গবন্ধু সৈনিকলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম দিদার, জহিরুল আলম বদনের জানাযায় বক্তব্য রাখেন তার মেজ ছেলে আলা উদ্দিন প্রমূখ । এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অসংখ্য নেতা কর্মী জানাযায় অংশ নেন । আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক এমপি তার বক্তব্যে বলেন , মরহুম জহিরুল আলম বদন যে দলের জন্য ত্যাগ শিকার করেছেন তার প্রমাণ দেয় আজকের জানাযার হাজারো লোকজনের অংশ গ্রহণের মধ্য দিয়ে । তিনি যে আসলেই সৎ এবং ত্যাগী কর্মী ছিলেন সেটাই প্রমাণ হল এই শোকার্ত মানুষের ভালবাসায় । তিনি আরো বলেন , কাউকে আঘাত করতে চাইলে বেত দিয়ে মারতে হয় না , মানুষের ব্যবহারে সব চাইতে মনে বড় আঘাত আনতে পারে । আজকে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আমার প্রিয় ভাই জহিরুল আলম বদন মারা গেছেন স্ট্রোক করে , কিন্তু সেও দলীয় কিছু উচ্ছৃঙখল কর্মীদের আচরণে তার মনে আঘাত প্রাপ্ত হয়েছেন বলে শুনেছি । তাই সবাইকে ভবিষ্যতে নিজ নিজ ভাষা বা আচরণ সংযত হওয়ার আহবান জানান । এসময় তিনি উচ্ছৃঙ্খল কর্মীদের বিরুদ্ধে দলীয় সিদ্ধান্তে ব্যবস্থা নেওয়ারও আশ্বাস দেন । এর পরে আশেক উল্লাহ রফিক এমপি মরহুম জহিরুল আলম বদনের কবর জিয়ারত শেষে তার বাড়ীতে কিছুক্ষণ সময় কাটান । এসময় তিনি মরহুমের বাড়ী দেখে অবাক হয়ে যান , তিনি বলেন একজন ইউনিয়ন আওয়মীলীগের দ্বীর্ঘ দিন সময় দলের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্বে থেকে একটা ঘুমানোর জন্য বাড়ীও করে যেতে পারে নি । সত্যি দলের জন্য নিবেদিত প্রাণ ছিলেন মরহুম জহিরুল আলম বদন । দলের জন্য তার এই আত্বত্যাগ চিরদিন অমলিন হয়ে থাকবে । তিনি মরহুম জহিরুল আলম বদনের বাড়ী যাতায়াতের রাস্তা দ্রুত আর সিসি ঢালাইয়ের মাধ্যমে নির্মাণ করে দেওয়ার জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ কে নির্দেশ দেন । এবং স্থানীয় জামে মসজিদের উন্নয়নের জন্য ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেন এমপি আশেক । কালারমারছড়ার ইউপি চেয়ারম্যান তারেক শরীফ বলেন , মরহুম জহিরুল আলম বদনের মৃত্যুতে দলের অপুরনীয় ক্ষতি হয়েছে । তিনি ছিলেন একজন হাস্যউজ্জল সাদা মনের মানুষ , তিনি সব সময় দলের জন্য ত্যাগ শিকার করে গেছেন । এসময় তিনি বক্তব্যদান কালে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন । বক্তারা মরহুমের আত্বার মাগফেরাত কামনা করে তার সমতপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন । উল্লেখ্য গত ১৬ নভেম্বর শনিবার সকাল ৯টার সময় ইউনুছখালী বাজারস্থ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে ওয়ার্ড় আওয়ামীলীগের সম্মেলন ও কাউন্সিল উপলক্ষ্যে দলীয় ফরম বিতরণ করেছিলেন । এ সময় স্থানীয় ওয়ার্ড় আওয়ামীলীগের সভাপতির সাথে স্থানীয় কিছু নেতাকর্মীর মধ্যে কথা কাটাকটি হয় । এক পর্যায়ে তারা উভয়ের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে । এ সময় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক জহিরুল আলম বদন এসে তাদের কে শান্ত থাকতে আহবান জানান । কিন্তু কিছু উচ্ছৃঙ্খল দলীয় নেতাকর্মী তাকে উদ্দেশ্য করে খারাপ মন্তব্য করেন । এতে তিনি লজ্জিত হয়ে ক্ষোভে টেনশন করে সেখানেই স্ট্রোক করেন । পরে তাকে দ্রুত চকরিয়া জমজম হাসপাতালে নেয়া হলে দুপুর ১২টার সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন ।