কবিতা “মধ্যবিত্ত বাবা” নাজমুল হাসান  

নিউজ নিউজ

ভিশন ৭১

প্রকাশিত: ৫:২৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৩, ২০২০

 

বাবার মতো বলে না কেউ,এত শত মিছে;
সবচেয়ে বড় মিথ্যে,তিনি ভালো নাকি আছে!
রোজ রাতে শুনি আমি,কাশের তীব্র আওয়াজ;
তাও বাবা মিথ্যে বলে,সেরে যাবে আজ!
মাথার ঘামে বৃষ্টি ঝরে চাল-ডাল ঘরে আনে,
মুখের উপর হাসি এনে আমায় বুকে টানে!
মহানিশায় চিন্তিত বাবা একাই থাকে বসে,
আর কতকাল কাঁদতে হবে,হয়তো হিসাব কষে!
মধ্যবিত্ত বাবা আমার,মাঠের রোদে পুড়ে;
ইচ্ছা হলে বায়না ধরবো সে আশা দূরে।

চিত্ত উজাড় বিত্ত খুশে বললো আমায় বাবা,
কাল থেকে বড় ইস্কুলে,পড়তে তুমি যাবা।
ধনী চাচার ধনী ছেলে আমার সঙ্গে পড়ে,
আমার সাথে ইস্কুলে যাবেনা,যদিও যায় সে মরে।
একটু আমার মন খারাপ হয়,ও নতুন কিছুনা বটে;
এমন এমন অসংখ্য তাচ্ছিল্য আমার তটে ঘটে।
মা’কে আমি কাঁদতে দেখি দিন-রজনীর ভীড়ে,
কষ্টগুলো কেমন যেন খাচ্ছে সবই ছিঁড়ে।
পার্টি,পিকনিক সবই করে বন্ধুমহল সবাই,
সাহস পাইনা একটু বলবো বাবা আমি যাই?
মানা করবে বাবা আমায় এটা বিশ্বাস হয় না,
খেয়ে না খেয়ে সবই দিয়েছে যা করেছি বায়না।
মধ্যবিত্ত বাবা আমার,মাঠের রোদে পুড়ে;
ইচ্ছা হলে বায়না ধরবো সে আশা দূরে।

একযুগ ধরে মায়ের শাড়ি দুটি দেখছি বারেবার,
তাও নাকি নতুন থাকে, কেনার কি দরকার!
পঞ্চাশ টাকার ফতুয়া আমায় ইদে বাবা দিয়েছে,
এটা নাকি অনেক দামি পুরো বাজার ঘুরেছে।
মাছের বড় মাথা বাবা আমার প্লেটে দিয়েছে,
তিনি নাকি রোজ রোজ এসব অনেক অনেক খেয়েছে।
সহস্র খানিক স্বপ্ন নিয়ে ঘুমুতে যাই যখন,
সকাল সাজে কোকিল ডাকে সবই ভুলেছি তখন।
মাকে বললাম মা! তুমি খাবেনা এখন?
মা বললো খেয়ে নে খোকা,খেয়েছি আমি তখন।

মধ্যবিত্ত বাবা আমার ফিরবে কখন নীড়ে,
সকল আশা পোষন করি,এই মহামানবকে ঘিরে।

মোঃ নাজমুল হাসান
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়,আই.ই.আর।
কুমিল্লা।