ওপারের পঁচা পেঁয়াজের ঝাঁজ বেড়েই চলছে এপারে

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৫:৩১ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২০

মোস্তাকিম হোসেন,হিলি স্থলবন্দর সংবাদদাতা:

মাঝে কিছুটা কমার পর আবারও হিলি স্থলবন্দরে বেড়েই চলছে পেঁয়াজের দাম। দাম বেড়েছে দেশি পেঁয়াজের কেজি ৯০ টাকা এবং আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজের কেজি ৮০ টাকায় উঠেছে। এদিকে একটু খারাপ মানের পেঁয়াজ কেজি প্রতি ৬০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর ভারত হুট করে বাংলাদেশে পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করে দেয়। ওপার সীমান্তে পেঁয়াজ বোঝাই দেড় শতাধিক ট্রাক আটকে যায়। যার ফলে দেশি পেঁয়াজের কেজি ১১০ টাকা এবং আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজের কেজি ৮০ টাকায় ওঠে।
অবশ্য তিনদিন পর আটকে থাকা পেঁয়াজ বাংলাদেশকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। ৫ দিন আটকে থাকার পর গত (১৯ সেপ্টেম্বর) শনিবার ওপার থেকে ১১ ট্রাকে ২৪৬ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়। এতে করে প্রতি গাড়িতে ৫ থেকে ৭ মেট্রিক টন পেঁয়াজ পঁচে নষ্ট হয়েছে। এতে দেশি পেঁয়াজের দাম কিছুটা কমে কেজি ৮০ টাকায় নেমে আসে। ভারতীয় পেঁয়াজের কেজি নামে ৪০ থেকে ৪৫ টাকায়। তবে ভারত থেকে আসা বেশিরভাগ পেঁয়াজ নষ্ট হওয়ায়,আবারও পেঁয়াজের দাম বেড়েছে।

এদিকে হিলি বাজারের খুচরা ব্যবসায়ীরা জানান, আমদানিকারকদের আড়তগুলোতে পেঁয়াজ আছে কিন্তু তারা বাজারে ছাড়ছে না। যার জন্য খুচরা বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজ খুব কম। পাবনা থেকে দেশী পেঁয়াজ এনে বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি করছি। ক্রেতারা ভারতীয় পেঁয়াজ না কিনে এখন দেশী পেঁয়াজ কিনছেন।

কথা হয় পেঁয়াজ ক্রেতাদের সাথে তারা বলেন, দেশী পেঁয়াজের সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম। দেশী পেঁয়াজের মান ভালো হওয়াই তারা ভারতীয় পেঁয়াজ কিনছেন না।