একজন আবরার ও নির্মমতার সাক্ষী জাতি !!

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ৪:৪৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৭, ২০১৯

ফারহানা সুপ্তি:

আবরার ফাহাদ বাবা মায়ের বড় সন্তান ভর্তি হয়েছিলেন দেশের নামকরা উচ্চতর শিক্ষাপীঠ ‘বুয়েটে’। অথচ আবরার কি জানতেন? উচ্চতর শিক্ষাপীঠ এর হলেই তাঁকে খুন হতে হবে ‘শিবির সন্দেহে’!

বুয়েটের শেরে বাংলা হল থেকে আবরার ফাহাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে পরিবার ও সহপাঠিরা।
গতকাল রাত ৮ টার সময় বুয়েটের ‘২০১১’ কক্ষে ছাত্রলীগ এর কর্মীরা আবরার ফাহাদ কে ডেকে নিয়ে ‘শিবির’ সন্দেহে অমানুষিক নির্যাতন করে মেরে ফেলে। রাত ২ টা নাগাদ শেরেবাংলা হলের ‘ই’ ব্লকের সিড়িতে লাশ ফেলে যায়।
আবরারের দোষ ছিল গতকাল সে বিকাল ৫ টা নাগাদ ভারত বিরোধী চুক্তি নিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিল।
আজ সোমবার (০৭ অক্টোবর) ভোর সাড়ে ৬টার দিকে মৃত অবস্থায় আবরারকে উদ্ধার করে পুলিশ। চকবাজার থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, রাতে বুয়েট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে খবর পেয়ে শেরেবাংলা হল থেকে ওই ছাত্রর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে।
এ বিষয়ে বুয়েটের দায়িত্বরত চিকিৎসক মাসুক এলাহী বলেন, রাত ৩টার দিকে ছাত্রদের মাধ্যমে খবর পেয়ে শেরেবাংলা হলের ১ম ও ২য় তলার মাঝামাঝি জায়গায় ফাহাদকে পড়ে থাকতে দেখি। তখন তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। তার শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
এঘটনায় জড়িত থাকা সন্দেহে বুয়েটে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাসেল ও সহ সভাপতি ফুয়াদকে আটক করেছে পুলিশ।

‘আবরার-এই দেশে জন্ম নেয়াই আজন্ম পাপ’!

———————–
ফারহানা সুপ্তি,শিক্ষার্থী,নোবিপ্রোবি