ইউএনও বন্ধ করে দিয়েছেন চারটি পুকুর তৈরির কাজ,আশুড়ার বিলে চলছে প্রভাবশালীদের পুকুর বাণিজ্য

নিউজ নিউজ

এডিটর

প্রকাশিত: ১:৩৩ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২৩, ২০২০

মোস্তাকিম হোসেন,হিলি স্থলবন্দর সংবাদদাতা:

দিনাজপুর জেলার সর্ব দক্ষিনে অবস্থিত বিরামপুর ও নবাবগঞ্জ উপজেলা।এখানে অবস্থিত উত্তরাঞ্চলের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র আশুড়ার বিল।এই বিলের সংস্কার কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন অবৈধ দখলদাররা।এর নেপথ্যে দুই উপজেলার প্রভাবশালীদের পুকুর বাণিজ্য রয়েছে বলে স্থানীয় জনগণ ও প্রশাসনের অভিযোগ।

শনিবার (২১ নভেম্বর) আশুড়ার বিল দখল করে পুকুর তৈরির সময় বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পরিমল কুমার সরকারের নেতৃত্বে সেখানে অভিযান চালিয়ে মুক্তার হোসেন (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ইউএনও বন্ধ করে দিয়েছেন আশুড়ার বিল দখল করে চারটি পুকুর তৈরির কাজ।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়,বিরামপুরের খানপুর ইউনিয়নের ধানজুড়ি এলাকায় এবং নবাবগঞ্জ উপজেলার গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের খটখটিয়া কৃষ্টপুর এলাকায় বিল দখল করে সেখানে ভেকু মেশিন দিয়ে পুকুর তৈরির মহোৎসব চলছে। বিলের মাঝে আড়াআড়িভাবে মাটি দিয়ে ভরাট করে দখল করে তাতে পুকুর তৈরি করছেন তারা।

স্থানীয়দের অভিযোগ,পুকুর বাণিজ্যকারী প্রভাবশালীদের ইন্ধনে অবৈধ দখলদাররা কয়েক মাস আগে আশুড়ার বিলের পানি ধরে রাখার জন্য নির্মিত ক্রসড্যামের বাঁধ কেটে দেন। গত তিন সপ্তাহ আগে আশুড়ার বিলে পানি ধরে রাখার জন্য ক্রসড্যামের সংস্কার কাজ শুরু করে প্রশাসন। এ সময় স্থানীয় প্রভাবশালীদের ইন্ধনে কতিপয় দখলদার সংস্কার কাজে বাঁধা দিয়ে সেখানে অবস্থান নেন।এর ফলে আশুড়ার বিলটি পানিশূন্য হয়ে পড়ে। এরপর পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী,স্থানীয় ভূমিদস্যু প্রভাবশালীরা ইচ্ছামতো বিলের জায়গা দখল করে তাতে ভেকু মেশিন দিয়ে দিন-রাত সমান ভাবে মাটি খনন করে পুকুর তৈরি করতে থাকেন।

বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পরিমল কুমার সরকার জানান, বিল দখল করে তাতে পুকুর তৈরির অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ও বনবিভাগের কর্মকর্তাসহ সেখানে অভিযান চালানো হয়। এ সময় বিরামপুর অংশে চারটি পুকুর তৈরির কাজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। দখলদারদের অনেকেই দাবি করেছেন, সরকারের কাছ থেকে পত্তন নেওয়া জমিতে পুকুর তৈরি করা হচ্ছে। কিন্তু পত্তন নেওয়া জমির শ্রেণি পরিবর্তনের কোনও সুযোগ নেই।

নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাজমুন নাহার জানান,আশুড়ার বিল উত্তরাঞ্চলের একটি অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র। বিলটিকে দখল করতে একটি প্রভাবশালী মহল অবৈধ দখলদারদের নিয়ে ক্রসড্যাম সংস্কার কাজে বাঁধা দিচ্ছে।সব পুকুর উচ্ছেদ করে অচিরেই বিলের স্বাভাবিক সৌন্দর্য্য ফিরিয়ে আনা হবে।
Type a message…